National

উপায় নেই, জাতীয় সড়কের ওপরই সন্তান প্রসব করলেন মহিলা

বাড়ি ফেরার পথে রাস্তাতেই সন্তানের জন্ম দিলেন মহিলা। পেশায় শ্রমিক ওই মহিলার প্রসব যন্ত্রণা ওঠে রাস্তায়। জাতীয় সড়কের ওপরই প্রসব হয় সন্তানের।

পরিযায়ী শ্রমিকদের এই লকডাউনে একের পর এক দুর্দশার কাহিনি উঠে আসছে সামনে। চরম কষ্ট সহ্য করেও তাঁরা ফিরতে চাইছেন নিজগৃহে। এমনই এক মহিলা স্বামীর হাত ধরে এসেছিলেন শ্রমিকের কাজ করতে। লকডাউনে দীর্ঘদিন আটকে থাকার পর চাইছিলেন বাড়ি ফিরতে। এদিকে তিনি তখন সন্তানসম্ভবা। হয়তো চেয়েছিলেন সন্তানের জন্ম হোক বাড়িতেই। বাড়ি থেকে অনেক দূরে তাঁদের কেই বা দেখাশোনা করবেন! কিন্তু বাড়ি ফেরার আগে রাস্তার ওপরই প্রসব হল সন্তানের।

তেলেঙ্গানার মেডাক জেলায় কাজ করতে আসা ওই মহিলা স্বামীর হাত ধরে ৪৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে হেঁটেই ফিরছিলেন বাড়িতে। ছত্তিসগড়ের বাসিন্দা ওই দম্পতির সঙ্গে আরও কয়েকজন শ্রমিকও ছিলেন। ৭২ কিলোমিটার হেঁটেও ফেলেছিলেন তাঁরা। কিন্তু সেইসময় মঙ্গলবার সকালে জাতীয় সড়কের ওপরই প্রসব যন্ত্রণা ক্রমশ বাড়তে থাকে ওই সন্তানসম্ভবা মহিলার। তাঁর স্বামী ও সঙ্গে থাকা শ্রমিকরা আপ্রাণ চেষ্টা করেন একটি গাড়ির বন্দোবস্ত করার। কিন্তু লকডাউনে সুনসান রাস্তায় সে বন্দোবস্ত করা সম্ভব হয়নি।

যন্ত্রণা বাড়তে থাকায় স্বামী ও সঙ্গে থাকা অন্য শ্রমিকরা ওই মহিলাকে যতটা পারেন সাহায্য করেন। পাশে থাকেন। মহিলা রাস্তার ওপরই সন্তানের জন্ম দেন। যেখানে সন্তানের জন্মের সময় হাসপাতালে চূড়ান্ত সতর্কতা নেওয়া হয়। ইনফেকশনের কথা মাথায় রাখা হয়। সেখানে ধূলিধূসরিত রাস্তার ওপর সন্তানের প্রসব। তাও এমন এক আতান্তর পরিস্থিতিতে। এদিকে ওই অবস্থার কথা স্থানীয়রা জানতে পেরে দ্রুত পুলিশে খবর দেন। পুলিশ হাজির হয়ে একটি গাড়ির বন্দোবস্ত করিয়ে দ্রুত মা ও সন্তানকে কাছের একটি হাসপাতালে পাঠানোর বন্দোবস্ত করে। চিকিৎসকেরা পরে জানান সদ্যোজাত সন্তান সহ মা অনিতা বাঈ সুস্থ আছেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button