National

১৯৮৪ সালে ‘মানুষ হত্যা’-র নির্দেশ এসেছিল পিএমও থেকে, দাবি বিজেপির

সামনেই পঞ্জাবে ভোট। তার আগে ১৯৮৪ সালের শিখ বিরোধী হিংসার প্রসঙ্গ উস্কে দিল বিজেপি। এমনিতেই প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীকে দুর্নীতিপরায়ণ বলে আখ্যা দিয়ে এবার লোকসভা নির্বাচনে সুর চড়িয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। এবার বিজেপি তাদের দলের ট্যুইটার হ্যান্ডলে উস্কে দিল ১৯৮৪ সালে শিখ বিরোধী হিংসার প্রসঙ্গ। তাদের দাবি সে সময়ে মানুষ হত্যার নির্দেশ এসেছিল নাকি খোদ পিএমও অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে। প্রসঙ্গত তখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন রাজীব গান্ধী।

বোফর্স নিয়ে প্রয়াত প্রধানমন্ত্রীকে নিশানা করার পর এবার মানুষ হত্যার জন্যও তাঁকে কাঠগড়ায় চাপিয়ে দিল বিজেপি। কারণ প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে নির্দেশ মানে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশই দাঁড়ায়। বিজেপির দাবি এই কর্মের বিচারের জন্য গোটা দেশ অপেক্ষায়। ফলে এদিন ফের নতুন করে রাজীব গান্ধীকে নিশানা করল বিজেপি।

আগেই তাঁর প্রয়াত বাবাকে দুর্নীতিগ্রস্ত বলার পর রাহুল গান্ধী পাল্টা জানান, মোদিজি যুদ্ধ শেষ, আপনার কর্মফল অপেক্ষা করছে। আপনার নিজের বিশ্বাসকে আমার পিতার ওপর চাপিয়ে নিজেকে বাঁচাতে পারবেন না। আমার ভালবাসা ও একটি বড় করে আলিঙ্গন রইল আপনার জন্য।

প্রসঙ্গত পঞ্জাবে এবার ১৩টি আসনে ভোট আগামী ১৯ মে। সেখানে প্রতিটি আসনই কংগ্রেস জিতবে বলে দাবি করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা অমরিন্দর সিং। পাল্টা শিখ বিরোধী হিংসা উস্কে এবার জয়ের রাস্তা তৈরি করতে ব্যস্ত বিজেপিও। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button