National

তৃতীয়বারের জন্য দিল্লিতে সরকার গড়ার পথে এনডিএ, নিরঙ্কুশ গরিষ্ঠতা পেল না বিজেপি

নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতা পেল না বিজেপি। তবে শরিক দলকে সঙ্গে নিয়ে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ তৃতীয়বারের জন্য দিল্লিতে সরকার গড়তে চলেছে। ভাল ফল করল কংগ্রেস।

দিল্লিতে বিজেপির সদর দফতরে উচ্ছ্বাস ছিল। নরেন্দ্র মোদীকে ঘিরে উল্লাস ছিল। তৃতীয়বারের জন্য দিল্লিতে সরকার গড়তে চলার আনন্দও ছিল কর্মী সমর্থকদের মুখে। কিন্তু কোথাও যেন একটা কাঁটা থেকেই গেল। ৪০০ আসনে জয়লাভের যে স্লোগান গেরুয়া শিবির থেকে গুঞ্জরিত হচ্ছিল দেশজুড়ে, তা এদিন তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে।

৪০০ দূরে থাক ৩০০-ও পার করতে পারল না এনডিএ। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী ২৯২টি আসন দখল করেছে এনডিএ। বিজেপি ২৪০টি আসনে জয়লাভ করেছে।

সার্বিক ফল প্রকাশের পর একটু এদিক ওদিক এই সংখ্যাটা হতে পারে, তবে বিজেপি যে নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতার অঙ্ক পার করতে পারল না তা পরিস্কার। ২০১৯ সালে ৩০৩ আসনে জিতে নিরঙ্কুশ সংখ্যা গরিষ্ঠতা পাওয়া বিজেপির জন্য অবশ্যই এটা এবার বড় ধাক্কা।

যা হয়তো একক দল হিসাবে সর্বাধিক আসন জিতেও গেরুয়া শিবিরকে সেই আনন্দে মেতে উঠতে দিল না। এবার বিজেপির জন্য বড় কাঁটা হয়ে রইল তাদেরই শক্ত ঘাঁটি হিসাবে পরিচিত উত্তরপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্র।


পশ্চিমবঙ্গ নিয়েও বিজেপি যতটা আশাবাদী ছিল তার ধারেকাছেও ফল হল না। বরং ওড়িশাতে দারুণ ফল করেছে বিজেপি। ওড়িশাতে সরকার গঠনও বিজেপি প্রায় নিশ্চিত করেছে।

প্রসঙ্গত বারাণসী থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেড় লক্ষ ভোটে এবং গান্ধীনগর থেকে অমিত শাহ প্রায় সাড়ে ৫ লক্ষ ভোটে জয়লাভ করেছেন। জয়লাভ করেছেন রাজনাথ সিংয়ের মত হেভিওয়েট নেতাও।

উল্টোদিকে কংগ্রেস কিন্তু এবার অনেকটাই ঘুরে দাঁড়িয়েছে। রাহুল গান্ধী রায়বরেলি ও ওয়ানাড, ২টি আসন থেকেই জয়লাভ করেছেন। কংগ্রেসের পকেট সিট হিসাবে পরিচিত আমেঠি গতবার হাতছাড়া হওয়ার পর এবার তা পুনরুদ্ধার হয়েছে।

কংগ্রেস ৯৯টি আসন জিতেছে। গতবার জিতেছিল ৫২টি আসন। অন্যদিকে ইন্ডিয়া জোট এবার ২৩২টি আসন জিতে শক্তিশালী বিরোধী হিসাবে বিজেপিকে সর্বদা চাপে রাখবে।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button