Saturday , October 12 2019
Wedding
প্রতীকী ছবি

জ্যোতিষ মতে বিবাহে রাজযোটক – শিবশংকর ভারতী

জ্যোতিষে রাশির মিল হলেই আদর্শ বিবাহ হল না। সার্বিক সুখকর গ্রহাবস্থান আদর্শ মিলনে জরুরি। বিবাহ বিচারে প্রথম প্রাধান্য দেওয়া হয় মানসিক মিলনের।

মেষরাশির পক্ষে অশুভ কন্যা ও বৃশ্চিকরাশির পাত্র বা পাত্রী। শুভ কর্কট, সিংহ, ধনু ও মকররাশি। অন্যান্য রাশির যোটক মধ্যম। বৃষরাশির পক্ষে অশুভ তুলা ও ধনুরাশি। শুভ সিংহ, কন্যা, মকর ও কুম্ভ। অন্যান্য রাশির মিলন মধ্যম।

মিথুনরাশির পক্ষে অশুভ বৃশ্চিক ও মকর। শুভ কন্যা, তুলা, কুম্ভ ও মীন। অন্যান্য রাশির সঙ্গে যোটক মোটামুটি তবে রাশিটি অভিশপ্ত। দেখা গিয়েছে, মিথুন রাশির পাত্র বা পাত্রীদের যে রাশির সঙ্গেই বিবাহ হোক না কেন, মনের মিলটা প্রায়ই হয় না।

কর্কটরাশির ক্ষেত্রে পরিত্যাজ্য ধনু ও কুম্ভ। তুলা, বৃশ্চিক, মীন ও মেষরাশিই শ্রেয় অন্যান্য রাশির সঙ্গে মনের মিল মধ্যম।

কন্যারাশির পক্ষে অশুভ মকর ও মেষ। ধনু, বৃষ রাশি শুভ। অন্যান্য রাশিতে অসুবিধে নেই।

তুলারাশির সঙ্গে মকর, কুম্ভ, কর্কটের মিলটা সাধারণত বেশি। মীন ও বৃষ রাশি বাদ। অন্যান্য রাশির সঙ্গে মিল মধ্যম।

বৃশ্চিকরাশির পক্ষে কুম্ভ, মীন, কর্কট ও সিংহ শুভ। অশুভ মেষ ও বৃষ। অন্যান্য রাশির যোটক মধ্যম।

ধনুরাশির সঙ্গে মীন, মেষ, সিংহ ও কন্যারাশির সঙ্গে মানসিক মিলন শুভপ্রদ। যোটক মিলনে পরিত্যাগ করতে হবে বৃষ ও কর্কটরাশি। অন্যান্য রাশির মিলন মোটামুটি শুভ।

মকররাশির সঙ্গে মীন, মেষ, কন্যা ও তুলারাশির মানসিক মিলন শুভপ্রদ। চলবে না মিথুন ও সিংহরাশি। অন্যান্য রাশির সঙ্গে মকর রাশির মিলন মধ্যম।

কুম্ভরাশির সঙ্গ মানসিক মিলনের বিচারে অগ্রাধিকার পাবে বৃষ ও তুলা রাশি। পরিত্যাগ করতে হবে কর্কট, সিংহ ও কন্যারাশি। অন্যান্য রাশির সঙ্গে যোটক মিলন মধ্যম।

মীনরাশির যোটক মিলনে শুভপ্রদ মীন, কর্কট, কন্যা, বৃশ্চিক ও ধনুরাশি। অন্যান্য রাশির সঙ্গে মিলন মধ্যম।

সবচেয়ে শুভ যোগ যদি পাত্রের রাশির পঞ্চমস্থানে পাত্রীর রাশি হয়। বিপরীতভাবে পাত্রীর ক্ষেত্রেও একই কথা। যেমন পাত্রের কন্যারাশি, পাত্রীর রাশি মকর, কিংবা পাত্রীর মীন, পাত্রের কর্কটরাশি। বৃষের সঙ্গে কন্যা, মিথুনের সঙ্গে তুলা, কর্কটের সঙ্গে বৃশ্চিক সিংহের সঙ্গে ধনু, তুলার সঙ্গে কুম্ভ বৃশ্চিকের সঙ্গে মীন, ধনুর সঙ্গে মেষ, মকরের সঙ্গে বৃষ এবং কুম্ভের সঙ্গে মিথুন। এ যোগ ‘পঞ্চ পল্লবক’ নামে অভিহিত। পাত্রপাত্রী উভয়ের একরাশি হলেও যোটক মিলন শুভ।

যোটক বিচারে বিবাহের ক্ষেত্রে আদর্শ যদি পাত্র-পাত্রীর জন্মকুণ্ডলীতে প্রজাপতি নির্বন্ধ যোগ হয়। এই যোগে বিবাহিত জীবন আনন্দময় হয়ে ওঠে। বিবাহোত্তর জীবন বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে ধনেজন লক্ষ্মীলাভ হয়। প্রজাপতি নির্বন্ধ যোগ থাকলে রাশি লগ্ন যাই হোক না কেন, এমন কি বৈধব্য দোষ ইত্যাদিরও কোনও বিচারের প্রয়োজন হয় না। এক কথায় যোটক বিচারেরও প্রয়োজন নেই।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *