World

জলে হারিয়ে গেল সারি সারি পোর্শে, অডি, ফোক্সওয়াগান গাড়ি

বিশ্বের অন্যতম সেরা গাড়ি এগুলি। দামও তার গুণগত মানের সঙ্গে তাল মিলিয়েই হয়। এমনই বহুমূল্য সারি সারি গাড়ি জলে গেল।

স্রেফ দেখা ছাড়া আর তেমন কিছুই করার ছিলনা। আগুনের লেলিহান শিখা থেকে মানুষকে বাঁচানো অনেক বেশি জরুরি ছিল। গাড়ি নয়। আর চাইলেও কি গাড়িগুলো বাঁচানো যেত? পূর্ব অভিজ্ঞতা ও উদাহরণ বলছে যেত না। কারণ অত গাড়িকে মাঝ সমুদ্র থেকে তীরে নিয়ে আসা মুখের কথা নয়।

২০১৯-এও এমনভাবেই জলে তলিয়ে গিয়েছিল দামি দামি গাড়ি। একটা আধটা নয়, অনেক গাড়ি। এবারও তাই হল। স্রেফ জলে গেল গাড়ির পর গাড়ি। তাও সবই দামি গাড়ি।


মুহুর্তে পান আপডেট, Join আমাদের WhatsApp Channel

ফোক্সওয়াগান থেকে শুরু করে অডি, পোর্শে, ল্যাম্বরগিনি সারি রাখা ছিল জাহাজটিতে। কার্গো জাহাজ হওয়ায় প্রচুর মাল পরিবহণের ক্ষমতা রয়েছে। তাতেই উড়ছিল পানামার পতাকা।

কার্গো জাহাজটিতে একটি কনসাইনমেন্ট যাচ্ছিল আটলান্টিক মহাসাগর ধরে। পুরোটাই ছিল গাড়িতে ভর্তি। প্রায় ৪ হাজার নতুন দামি গাড়ি ছিল জাহাজটিতে। কনসাইনমেন্টটা পাঠাচ্ছিল ফোক্সওয়াগান নামে জার্মানির গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা।

গত বুধবার বিকেলে জাহাজটিতে আগুন লেগে যায়। সেটি তখন আজোরেস দ্বীপের কাছে ছিল। আগুন লাগার খবর পেয়ে সেখানে উড়ে আসে পর্তুগালের নৌ ও বিমানবাহিনী। দ্রুত সেখানে হাজির হয়ে জাহাজে থাকা ২২ জনকে উদ্ধার করে।

মানুষকে বাঁচানোই ছিল তাদের প্রধান উদ্দেশ্য। জাহাজটি মাঝ সমুদ্রেই দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে। মানুষগুলিকে বাঁচানোর পর জাহাজ থেকে গাড়িগুলিকে বাঁচানো নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু হয়।

এদিকে জাহাজে আগুন লাগায় যাঁদের ওই গাড়ি ডেলিভারি দেওয়ার কথা ছিল সেসব ক্রেতাকে সংস্থাগুলির তরফে যোগাযোগ করা হয়। জানানো হয় সঠিক সময়ে হয়তো তাঁরা গাড়ির ডেলিভারি পাবেন না।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *