Entertainment

ক্ষোভে ফেটে পড়লেন জয়া বচ্চন, পাল্টা জবাব কঙ্গনার

রাজ্যসভায় সমাজবাদী পার্টির সাংসদ জয়া বচ্চন এদিন ক্ষোভে ফেটে পড়েন। নাম না করে বলিউডের বিরুদ্ধে সুর চড়ানোর বিরুদ্ধে সোচ্চার হন তিনি। পাল্টা জবাব দিয়েছেন কঙ্গনাও।

নয়াদিল্লি : সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর ক্রমশ বলিউডের স্বজনপোষণ ও বাইরে থেকে কেরিয়ার তৈরি করতে আসা মানুষদের কোণঠাসা করার চেষ্টার বিরুদ্ধে মুখ খোলা শুরু হয়। পরে সেই সোচ্চার আক্রমণে সোশ্যাল মিডিয়ার পাশাপাশি যুক্ত হন বলিউড তারকা কঙ্গনা রানাওয়াত। মুখ খুলেছেন বিজেপি সাংসদ রবি কিষাণও। যিনি নিজে এক সময়ের তারকা। এবার এঁদের নাম না করে আক্রমণ শানালেন জয়া বচ্চন।

জয়া বচ্চন মঙ্গলবার রাজ্যসভায় বলেন, ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ওপর ক্রমাগত আক্রমণ চলছে। নাম না করেই তিনি বলেন, যে বলিউড অনেককে নাম দিয়েছে, খ্যাতি দিয়েছে সেই বলিউড নিয়েই প্রকাশ্যে খারাপ কথা বলছেন কেউ কেউ। এই বলিউডেই এমন অনেকে রয়েছেন যাঁরা ব্যক্তিগত স্তরে দেশের সর্বোচ্চ করদাতাদের দলেও পড়েন। সেই ইন্ডাস্ট্রিকে একটানা অপমান করা হচ্ছে। কয়েকজন কী করেছেন তার জন্য গোটা ইন্ডাস্ট্রিকে বদনাম করা হচ্ছে।

জয়া বচ্চন মূলত ক্ষোভ উগরে দেন বিজেপি সাংসদ রবি কিষাণের বক্তব্যকে সামনে রেখে। যেখানে তিনি দাবি করেছেন পাকিস্তান, চিন থেকে নেপাল হয়ে ভারতে নিষিদ্ধ মাদক ঢোকে। আর তা বলিউডেও যায়।

কঙ্গনা রানাওয়াতও দাবি করেছেন বলিউডে মাদকের ব্যবহার যথেষ্ট হয়। এমনকি সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে মাদক যোগের বিষয়ে তদন্তে নেমে এনসিবি রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করার পর রিয়া চক্রবর্তীও নাকি বেশ কয়েকজন বলিউড তারকার নাম এনসিবি-কে জানিয়েছেন, যাঁরা মাদক সেবন করেন। যে তালিকায় সারা আলি খান, রাকুল প্রীত সিং-য়ের নামও রয়েছে।


এদিন রাজ্যসভায় জয়া বচ্চনের নিশানা রবি কিষাণের দিকে হলেও সেই নিশানায় যে তিনিও ঢুকে পড়েছেন তা হয়তো আন্দাজ করেছিলেন কঙ্গনা। তিনি পাল্টা জয়া বচ্চনের কাছে জানতে চান, একই ঘটনা যদি জয়া বচ্চনের মেয়ে শ্বেতা বচ্চনের সঙ্গে ঘটত, তাঁকে মারধর করা হত, তাঁকে টেনে নিয়ে যাওয়া হত তাহলেও কী জয়া একই কথা বলতেন? যদি অভিষেক বচ্চনকে এক সময় ঝুলন্ত অবস্থায় ঘর থেকে উদ্ধার করা হত তখনও কী জয়া বচ্চন একই কথা বলতেন? তাঁদের প্রতিও একটু সহানুভূতিশীল হতে জয়া বচ্চনকে অনুরোধ করেন কঙ্গনা।

ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির পাশে দাঁড়িয়ে এদিন রাজ্যসভায় জয়া বচ্চনের বক্তব্যের পর তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণের মুখে পড়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়া শুধু জয়া বচ্চন বলেই নয় এদিন গোটা বচ্চন পরিবারকেই আক্রমণ করেছে। নেটিজেনদের দাবি জয়া বচ্চন এদিনের বক্তব্যে বলিউডের মাদকাসক্তদের বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। বচ্চন পরিবার কেন পালঘর কাণ্ড বা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুতে চুপ করেছিল তাও জানতে চেয়ে আক্রমণ শানান নেটিজেনরা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button