World

অস্ত্র হাতে কয়েকজনের সঙ্গে সেনার গুলির লড়াই, মৃত ১৫

পুলিশের কাছে খবর আসে যে বেশ কয়েকজন অস্ত্রধারীকে রাস্তায় দেখতে পাওয়া গেছে। তারা সেখানে ঘুরে বেড়াচ্ছে। সঙ্গে সঙ্গে সতর্ক হয় পুলিশ। খবর যায় সেনার কাছে। দ্রুত সেই এলাকায় হাজির হয় সেনা। সেনাবাহিনী এলাকা ঘিরে ফেলার পর অস্ত্রধারীরা প্রথমে তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালায়। পাল্টা জবাব দেয় সেনা। এলাকা রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়। গুলি পাল্টা গুলি চলতে থাকে। এই গুলির লড়াইয়ে ১৫ জনের মৃত্যু হয়।

গত মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে মেক্সিকোর গুয়েরেরো রাজ্যের লাগুয়ালার টেপোচিকা এলাকায়। এই ঘটনায় এলাকার স্থানীয় মানুষের মধ্যেও আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। অস্ত্রধারীদের হাতেও আধুনিক অস্ত্র ছিল। ফলে লড়াই যথেষ্ট বড় আকার নেয়। গত সোমবারই এমনই কয়েকজন বন্দুকধারীর হাতে মৃত্যু হয় ১৩ জন পুলিশকর্মীর। আচমকা হামলায় কিছু বুঝে ওঠার আগেই পুলিশদের দেহ ঝাঁঝরা করে দেয় অস্ত্রধারীরা। ঘটনাটি ঘটে মেক্সিকোর আগুইলিলা শহরে।

১৩ জন পুলিশ কর্মীর মৃত্যুর পরই সতর্ক ছিল পুলিশ, তারপরই গুয়েরেরোতে অস্ত্রধারীদের দেখার পর তারা দ্রুত সেনাকে খবর দেয়। প্রসঙ্গত এই গুয়েরেরো এলাকা মেক্সিকোর অপরাধমূলক কার্যকলাপের আঁতুড়ঘর। এখানে অনেকগুলি ড্রাগ পাচারকারী চক্র রয়েছে। যাদের জন্য এই এলাকায় অপরাধ প্রাত্যহিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসব ড্রাগ পাচারকারী দলে অস্ত্রধারীর সংখ্যা নেহাত কম হয়না। তাদের হাতে আধুনিক অস্ত্রও থাকে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button