Advertise With Us
Indian Premier League 2017

উত্থাপ্পা-গৌতমের তাণ্ডব, বিশাল রান করেও লাভ হলনা পুনের

উত্থাপ্পা-গৌতম গম্ভীর জুটি বাধলে যে বিপক্ষ দলের কোনও রানই বড় রান নয়, তা ফের একবার প্রমাণ করলেন কলকাতা নাইট রাইডার্স। এদিন পুনের মাঠে তাদের ৭ উইকেটে হারিয়ে ফের আইপিএল টেবিলের শীর্ষে চলে গেল শাহরুখের দল। এদিন টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন কলকাতার অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর। শুরু থেকেই হিসেব কষা খেলা খেলে রান এগিয়ে নিয়ে যাতে থাকে পুনে। ওপেনার রাহানে-রাহুল ত্রিপাঠি জুটি ঠিকঠাক ব্যবহার করেন পাওয়ার প্লের প্রথম ৬ ওভার। পরে ধোনির ঝোড়ো ২৩ রান আর অধিনায়ক স্মিথের অপরাজিত ৫১ রান পুনেকে ভাল রানের দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। কিন্তু কলকাতার জন্য সবচেয়ে খারাপটা বোধহয় শেষের দুই ওভার। যেখানে ড্যানিয়েল ক্রিশ্চিয়ানের বেদম প্রহার সহ্য করতে হয় কলকাতার বোলারদের। ফলও হয় মারাত্মক। ১৮২ রানের রীতিমত চ্যালেঞ্জিং টোটাল করে কলকাতাকে চাপে ফেলে দেন পুনের ব্যাটসম্যানেরা। ১৮৩ তাড়া করতে নেমে এদিন কলকাতার শুরুটা দারুণ কিছু ছিলনা। বরং ৬ ওভারের শেষে নারিনের উইকেট হারানো কলকাতাকে কিছুটা নড়বড়েই ঠেকছিল। অন্যদিকে বড় রানের টোটাল তাড়া করতে নেমে পাওয়ার প্লেতে ৬ ওভারের শেষে মাত্র ৪৫ রান তোলায় ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরা কলকাতার সম্ভাবনা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন। কিন্তু ম্যাজিক তখনও বাকি ছিল। রবীন উত্থাপ্পার একটা সহজ ক্যাচ হাতছাড়া হওয়ার পর থেকেই যেন বিধ্বংসী হয়ে ওঠেন কলকাতার অন্যতম ব্যাটিং ভরসা উত্থাপ্পা। প্রধানত তাঁর ঝোড়ো ব্যাটিং শুরু হতেই পুনে প্রমাদ গুনতে শুরু করে। ৭ থেকে ১০ ওভারের মধ্যে চার আর ছয়ের যে তাণ্ডব উত্থাপ্পা দেখান তাতে খেলার মোড় ঘুরে যায়। সঙ্গে যোগ্য সঙ্গত দিতে থাকেন গম্ভীর। যদিও তারপরও রানের গতি থমকে যায়নি। ফলে ওই বিশাল রানের লক্ষ্য একসময়ে খুব কম মনে হতে থাকে। খেলা যে অনেক বল বাকি থাকতেই শেষ হয়ে যাবে তা হাড়ে হাড়ে বুঝতে পারেন পুনের খেলোয়াড়েরা। এর মধ্যে গৌতম গম্ভীরের একটা ক্যাচ ফস্কানো কফিনে শেষ পেরেকটা পুঁতে দেয়। এরপর কলকাতার জয়টা ছিল সময়ের অপেক্ষা। এক সময়ে ২৪ বলে ৫ রান করলেই জিতবে এই অবস্থায় উত্থাপ্পা ও গৌতম গম্ভীর দুজনেই নাটকীয় সমাপ্তির লোভে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। যা অবশ্যই কলকাতার জন্য তখন কোনও প্রয়োজন ছিলনা। পরে অবশ্য ডারেন ব্রাভোর জয়সূচক একটি বাউন্ডারি খেলা শেষ করে। ৪৭ বলে ৮৭ রানের অনবদ্য ইনিংসের জন্য ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন উত্থাপ্পা। ৪৬ বলে ৬২ রান করে স্টাইলিশ ব্যাটসম্যান অফ দ্যা ম্যাচ পুরষ্কার পান গৌতম গম্ভীর।

Advertise With Us

About News Desk

Check Also

Strike

বস্ত্রশিল্পে ৯৬ ঘণ্টা, ব্যবসা বন্ধ শুধু শুক্রবার

আগামী ১ জুলাই থেকে দেশ জুড়ে চালু হচ্ছে জিএসটি। নয়া এই কর ব্যবস্থার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে রাজ্য জুড়ে ৩ দিনের ধর্মঘটে নামলেন বস্ত্র ব্যবসায়ীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *