Friday , August 17 2018
Maha Shivaratri

শিবরাত্রি ব্রতপালনের নিয়ম – শিবশংকর ভারতী

অনেক সময়েই খানিক উদ্বেগ ও অস্বস্তির সুরে অনেককেই বলতে শোনা যায়, ‘শিবরাত্রিতে কি সারা রাত জাগতে হয়? প্রতি প্রহরে কি শিবের মাথায় জল ঢালতে হয়? কতক্ষণ উপবাসে থেকে কখন খাওয়া যাবে? শিবরাত্রে কি খাওয়ার নিয়ম?’ শিবরাত্রের ব্রতপালন নিয়ে নানান জিজ্ঞাসা ও মানসিকদ্বন্দ্ব ‘ঠিক পালন করা হল তো?’ এমনটা বহু বছর দেখে আসছি অসংখ্য ব্রতপালনকারীদের মধ্যে।

এই ব্রতপালন প্রসঙ্গে সহজ সরল ও সঠিক নিয়মের কথা তুলে ধরছি। ভারতবরেণ্য মহাপুরুষ ব্রজবিদেহী মহন্ত ও চতুঃসম্প্রদায়ের শ্রীমহন্ত ১০৮ স্বামী সন্তদাস বাবাজি মহারাজ বলেছেন, ‘শিবরাত্রির দিন সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপবাস থেকে পরে শিবলিঙ্গে জল, বেলপাতা, কিছু ফল, বিশেষ করে বেল দিয়ে পুজো করে, ফলমূল ইত্যাদি ফলারি বস্তু উপাস্য দেবতা বা গুরুকে নিবেদন করে প্রসাদ গ্রহণ করলেই শিবরাত্রির ব্রত সিদ্ধ হয়। যার বিশেষ সামর্থ্য আছে সে সারা রাত উপবাসে থেকে ভজন করে রাত জাগতে পারে। যদি কেউ রাত না জাগে তাতে কোনও দোষ হয় না’। এই ব্রতপালন নারীপুরুষ নির্বিশেষে সকলেই করতে পারে। এতে অশেষ কল্যাণ হয়।

About Sibsankar Bharati

স্বাধীন পেশায় লেখক জ্যোতিষী। ১৯৫১ সালে কোলকাতায় জন্ম। কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্যে স্নাতক। একুশ বছর বয়েস থেকে বিভিন্ন দৈনিক, সাপ্তাহিক পাক্ষিক ও মাসিক পত্রিকায় স্থান পেয়েছে জ্যোতিষের প্রশ্নোত্তর বিভাগ, ছোট গল্প, রম্যরচনা, প্রবন্ধ, ভিন্নস্বাদের ফিচার। আনন্দবাজার পত্রিকা, সানন্দা, আনন্দলোক, বর্তমান, সাপ্তাহিক বর্তমান, সুখী গৃহকোণ, সকালবেলা সাপ্তাহিকী, নবকল্লোল, শুকতারা, দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়ার নিবেদন 'আমার সময়' সহ অসংখ্য পত্রিকায় স্থান পেয়েছে অজস্র ভ্রমণকাহিনি, গবেষণাধর্মী মনোজ্ঞ রচনা।

Check Also

Bilkeshwar Mahadev

এঁকে দর্শন না করলে হরিদ্বার যাওয়াই বৃথা! কে তিনি? জানুন

তীর্থকামী কিংবা ভ্রমণপিয়াসীদের মধ্যে হরিদ্বারে যাননি এমন মানুষের সংখ্যা এখন নেহাতই কম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.