Thursday , May 23 2019
Rose
ফাইল : ফুলের বাজারে গোলাপের বাহার, ছবি - আইএএনএস

গ্রীষ্মে মাছি তাড়ানো ফুল ব্যবসায়ীদের এখন দম ফেলার ফুরসত নেই

সাধারণত বছরের এই সময়ে গাঁদা ছাড়া আর কোনও ফুল স্টকে রাখেননা ফুল ব্যবসায়ীরা। গরমের দিনগুলো উত্তরপ্রদেশের ফুল ব্যবসায়ীদের কাছে আতঙ্কের। এমন মন্দা সময় বছরের আর কোনও সময়টায় যায়না। গোটা গরমটা কোনওক্রমে কটা গাঁদা বেচে চালাতে হয় তাঁদের। এবারও গরম পিচ গলাচ্ছে। উত্তরপ্রদেশের অনেক জায়গাতেই উষ্ণতার পারদ ৪০ পার করেছে। কিন্তু এই অবস্থাতেও খুশির হাওয়া ফুল ব্যবসায়ী মহলে। চাঙ্গা বাজারের খুশি, লাভের খুশি, কাজরে চাপের খুশি। সময়মত ফুলের যোগান দিতে হিমসিম খাচ্ছেন তাঁরা। কিন্তু এবার এমন কী হল যে ফুল ব্যবসায়ীদের দিন ফিরে গেল? উত্তর একটাই। ভোটের বাজার।

উত্তরপ্রদেশের বারাণসীতে আগামী সপ্তাহ থেকে বিজেপির প্রায় সব বড় নেতাই ঢুকে পড়ছেন। প্রধানমন্ত্রীর হয়ে প্রচারের পালে লাগতে চলেছে দমকা হাওয়া। এই অবস্থায় সেখানে গোলাপ ফুলের পাপড়ির অর্ডার চরমে উঠেছে। একে গরম, তার ওপর দূষণের কথা মাথায় রেখে এবার আবির নয়, বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে ফুলের পাপড়ি। বিজেপির প্রতিটি মিছিলে ১ হাজার কেজি করে শুধু গোলাপের পাপড়ি লাগছে। গোলাপের পাপড়িতে পাপড়িতে ভরে যাবে চারধার। আর তা যোগান দিতে দিনরাত এক করে ব্যস্ত ফুল ব্যবসায়ীরা।

কংগ্রেসের আবার চাহিদা হল ৩ রঙের ফুল দিয়ে তৈরি বিশাল বিশাল মালা ও বোকে। সেই তিরঙ্গা মালার চাহিদাও তুঙ্গে। যত বড় বড় নেতা আসছেন সকলের জন্য মালা আর বোকের অর্ডার আসছে চারিদিক থেকে। এদিকে কংগ্রেসের দেখে বিজেপিও নাকি মালা ও বোকের অর্ডার দিচ্ছে ঢেলে। তাদের আবার দাবি পুরোটাই হতে হবে গেরুয়া রঙের ফুলে। এক্ষেত্রে কমলা রঙের লিলি ফুল ব্যবহার করছেন ফুল ব্যবসায়ীরা। সবমিলিয়ে গরমের দিনে মাছি তাড়ানো উত্তরপ্রদেশের ফুল ব্যবসায়ীদের এখন দম ফেলার সময় নেই। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *