World

ইস্তানবুলের বিমানবন্দরে আত্মঘাতী হামলা, মৃত ৫০

বেলজিয়ামের পর এবার তুরস্ক। এদিন তুরস্কের অন্যতম প্রধান শহর ইস্তানবুলে বড়সড় হামলা চালার জঙ্গিরা। বেসরকারি সূত্রের খবর, সন্ত্রাসবাদীর গুলি ও আত্মঘাতী বিস্ফোরণে মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ৫০ জনের। আহত প্রায় ২৫০। তবে সরকারিভাবে মৃতের সংখ্যা ৪১ বলা হয়েছে। ইস্তানবুলের আতাতুর্ক বিমানবন্দর। সময় তখন রাত ১০টা। ইস্তানবুলে এখন গ্রীষ্ম। সারা বছরই এখানে পর্যটকদের ভিড় লেগে থাকলেও গ্রীষ্মে সেই সংখ্যা সর্বাধিক। ফলে বিমানবন্দরে থিক থিক করছিল দেশি, বিদেশি মানুষজন। তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইদরিম জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় রাত ১০টা নাগাদ বিমানবন্দরের সামনে যাত্রী সেজে ট্যাক্সি থেকে নামে ৩ জঙ্গি। ট্যাক্সি থেকে নেমেই তারা এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ শুরু করে। আতঙ্কে ছোটাছুটি শুরু হয়ে যায়। এই সময়ে বেশ কয়েকজন গুলিতে জখম হয়ে লুটিয়ে পড়েন বিমানবন্দরে। এরপর আন্তর্জাতিক টার্মিনালের সামনে গিয়ে ২ জঙ্গি বিস্ফোরণ ঘটায়। বিস্ফোরণের পর নিজেদের গায়ে বাঁধা বিস্ফোরকও ফাটিয়ে দেয় তারা। তৃতীয়জন ততক্ষণে পৌঁছে যায় বিমানবন্দরের পার্কিং লটে। সেখানে নিজেকে মানব বোমা হিসাবে ব্যবহার করে গায়ে বাঁধা বিস্ফোরক ফাটিয়ে দেয় সে। বিমানবন্দরের সিসিটিভি ক্যামেরায় সেই ভয়ংকর ছবি ধরাও পড়েছে। এদিকে ঘটনার পরই গোটা এলাকা ঘিরে ফেলে পুলিশ। আহতদের হাসপাতালে পাঠানো হয়। সিল করে দেওয়া হয় বিমানবন্দর। শুরু হয় খানাতল্লাশি। এদিকে ঘটনার খবর জানাজানি হতেই গোটা ইস্তানবুল জুড়ে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। শহরে রেড অ্যালার্ট জারি করে প্রশাসন। এই ঘটনার পিছনে আইএসের হাত রয়েছে বলে অনুমান করছে তুরস্ক প্রশাসন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.