World

টাইট পোশাক পরায় তরুণীকে চরম শাস্তি, তালিবানি তাণ্ডব

শরীরের সঙ্গে লেপ্টে থাকা পোশাক পরায় এক তরুণীকে ভয়ংকর শাস্তি দিল তারা। কিশোরীদের জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করাও শুরু করেছে।

বয়স ২১ বছর। ভুলের মধ্যে ওই তরুণী যে পোশাক পরেছিলেন তা গায়ের সঙ্গে লেপ্টে ছিল। টাইট পোশাক। তার ওপর তিনি ওই পোশাকে রাস্তায় বার হয়েছিলেন একা। সঙ্গে কোনও পুরুষ আত্মীয় ছিলেননা। এটাই তাঁর ‘অপরাধ’। আর তার জন্য যে তাঁর জন্য এমন শাস্তি অপেক্ষা করছে তা বোধহয় বুঝতে পারেননি তরুণী।

আফগানিস্তানের বালখ প্রদেশের সমর কান্দিয়ান গ্রামটি এখন তালিবানের দখলে। ওই তরুণীকে টাইট পোশাকে একা ঘুরতে দেখে তালিবান জঙ্গিরা হাজির হয়। তারপর খুব কাছ থেকে তাঁকে গুলি করে হত্যা করে। তালিবানের স্পষ্ট বার্তা, তাদের ফতোয়া না মানলে এটাই শাস্তি।

আফগানিস্তানে তালিবানের সঙ্গে আফগান সরকারের লড়াই চরম পর্যায়ে পৌঁছে গেছে। রক্তাক্ত চেহারা নিয়েছে আফগানিস্তান।

তালিবান যেখানে সেখানে ঢুকে আক্রমণ ও হত্যালীলা চালাচ্ছে। মহিলাদের পর্দানশীন থাকার ফতোয়া তো তারা আগেই জারি করেছিল। তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা এলাকাগুলোতে এখন তা প্রবলভাবে মানা হচ্ছে।


তালিবানের হাতে মৃত্যু হচ্ছে সাধারণ আফগানদের। আফগান সরকারের অভিযোগ তালিবানের এই নৃশংস তাণ্ডবে মদত দিচ্ছে পাকিস্তান।

তালিবান একদিকে যখন মহিলাদের পর্দানশীন থাকার ফতোয়া দিচ্ছে, তখন তারাই আবার কিশোরী মেয়েদের জোর করে তুলে নিয়ে গিয়ে বিয়ে করছে।

তালিবান জঙ্গিরা এখন তারা যেখানে শক্তিশালী সেসব এলাকার কিশোরী মেয়েদের জোর করে তুলে নিয়ে যাচ্ছে। তারপর তাদের বিয়ে করছে। তাদের ওপর হচ্ছে পাশবিক শারীরিক নির্যাতন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button