SciTech

সিমেন্টের ভেল্কিতে হারিয়ে যেতে চলেছে ব্যাটারির ব্যবহার

ব্যাটারি এখন এক অতি আবশ্যিক উপাদান। যা বিদ্যুতের স্বল্প প্রয়োজনকে মেটাতে পারে। কিন্তু তার বিকল্পের পথ দেখাল নতুন আবিষ্কার। সিমেন্টেই হবে বাজিমাত।

পৃথিবীতে কি থেকে যে কি হতে পারে সে সম্বন্ধে সত্যিই এখনও মানুষের অনেক কিছুই অজানা। কেউ কি ভেবেছিলেন যে সিমেন্ট আর কার্বন কখনও ব্যাটারির বিকল্প হয়ে উঠতে পারবে। কিন্তু সেই ভেল্কিও দেখিয়ে দিলেন এমআইটি-র গবেষকেরা।

সিমেন্ট ও কার্বন ব্ল্যাকের মিশ্রণ দিয়ে গবেষকেরা একটি ‘সুপারক্যাপাসিটর’ বানিয়ে ফেলেছেন। যা বিদ্যুৎ সংরক্ষণ করে রাখতে সিদ্ধহস্ত। ব্যাটারি থেকে বিদ্যুতের সেক্ষেত্রে আর প্রয়োজনই পড়বে না।

আবার বিশ্বজুড়ে যে অচিরাচরিত বিদ্যুতের ব্যবহার নিয়ে এত উৎসাহ প্রদান চলছে তাও কার্যকরী হওয়ার পথে অনেকটাই এগিয়ে যাবে। তার প্রচলনও বাড়বে। মানে এক ঢিলে ২ পাখিও মরবে আবার ব্যাটারিও ইতিহাসের পাতায় চলে যাবে।

গবেষকেরা জানাচ্ছেন, সিমেন্টের সঙ্গে অল্প কার্বন ব্ল্যাক ব্যবহার করে যে সুপারক্যাপাসিটর বানিয়েছেন তাঁরা তাতে সৌর বিদ্যুৎ, হাওয়া থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ বা জোয়ারের জল থেকে তৈরি বিদ্যুৎ সংগ্রহ করে রেখে দেওয়া যাবে। প্রয়োজনে তা ব্যবহার করা সম্ভব হবে।


এতে বিশ্বজুড়ে বিদ্যুতের চাহিদাও অনেকটা মিটবে। আবার বিশ্বজুড়ে এই অতি সহজে পাওয়া যাওয়া সিমেন্ট ও কাঠকয়লা থেকে তৈরি হওয়া কার্বন ব্ল্যাক দিয়ে অতি স্বল্প খরচে তৈরি করে ফেলা যাবে এই অচিরাচরিত বিদ্যুতের সংগ্রহশালা।

এই আবিষ্কারের ব্যবহারিক প্রয়োগ শুরু হয়ে গেলে নানা কাজে বিদ্যুতের প্রয়োজন সহজেই মিটিয়ে ফেলা সম্ভব হবে। সেজন্য আর ব্যাটারি লাগবেনা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button