State

রাজীবকে দলে ফেরানোয় অখুশি কল্যাণ মনে করালেন মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফের দলে ফেরানো নিয়ে দলের বিরুদ্ধেই কার্যত মুখ খুললেন তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় আপাদমস্তক দুর্নীতিগ্রস্ত, তাও তাঁকে কেন দলে ফেরানো হল তা বুঝে উঠতে পারছেন না তিনি। রবিবার আগরতলায় রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে দলে ফেরানোর পর এভাবেই দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে খোলাখুলি মুখ খুললেন সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

কল্যাণবাবুর দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই ডোমজুড়ে বিধানসভা নির্বাচনের আগে জনসভা করতে গিয়ে বলেছিলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের গড়িয়াহাটে ৩-৪টি ফ্ল্যাট রয়েছে। এছাড়াও অন্যত্র ফ্ল্যাট রয়েছে। এছাড়া দুবাইতে রাজীবের বিনিয়োগও রয়েছে।

তারপরেও রাজীবকে দলে ফেরানোয় বিস্ময় প্রকাশ করেন শ্রীরামপুরের সাংসদ। সাহিত্যিক সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ে লেখা একটি কবিতার লাইন উল্লেখ করে তিনি বলেন, কেউ কথা রাখেনি।

এদিন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধেও কার্যত মুখ খুলেছেন। তিনি মনে করিয়ে দিয়ে বলেন, বিধানসভা নির্বাচনের আগে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন যাঁরা দলের সাধারণ কর্মীদের ভাবাবেগে আঘাত করেছেন তাঁদের দলে ফেরানো হবে না।

কল্যাণবাবু বলেন, তিনি নিজে দলের একজন সাধারণ কর্মী। আর দলের এই সিদ্ধান্তে তাঁর আপত্তি রয়েছে। যদিও তিনি এও বলেন, এক তৃণমূলকর্মী হিসাবে তিনি দলের শীর্ষ নেতৃত্বের সিদ্ধান্ত মেনে নিতে বাধ্য।

এদিকে কল্যাণবাবুর এই খোলাখুলি মন্তব্য কিন্তু দলের মধ্যেই এক ঝড় তুলেছে। বিধানসভা নির্বাচনে হারের পর থেকেই রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফেরানো নিয়ে কথা শুরু হয়।

তখন খোদ ডোমজুড়ের তৃণমূলকর্মীদের একাংশ এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান। পোস্টারও পড়ে। তারপরেও রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফেরানো নিয়ে দলের একাংশের যে অসন্তোষ রয়েছে তা কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের এদিনের মন্তব্য থেকেই পরিস্কার।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.