Business

নতুন অফার নিয়ে সরকারের কাছে বিজয় মালিয়া

সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকার ঋণ খেলাপির অভিযোগ রয়েছে তাঁর মাথায়। দেশ থেকে রাতারাতি পালান লিকার ব্যারন বিজয় মালিয়া। এবার সরকারের কাছে নতুন আর্জি জানালেন পলাতক এই ব্যবসায়ী।

বিভিন্ন ব্যাঙ্ক মিলিয়ে প্রায় সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকা ঋণখেলাপির অভিযোগ ছিল। এই টাকা অদেয় রেখেই দেশ ছেড়ে পালান তিনি। সকলেই জানেন তিনি এখন লন্ডনে রয়েছেন। তাঁকে ফেরাতেও চেষ্টা চালাচ্ছে সিবিআই ও ইডি। কিন্তু বিজয় মালিয়াকে এখনও দেশে ফেরাতে পারেনি দেশের অন্যতম বিশিষ্ট ২ তদন্তকারী সংস্থা। এই পরিস্থিতিতে বিজয় মালিয়া এবার নতুন অফার নিয়ে সরকারের কাছে হাজির। বিজয় মালিয়া একটি ট্যুইট করে তাঁর অফার পেশ করেছেন।

মালিয়া ট্যুইট করে ভারত সরকারকে করোনা মোকাবিলায় আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন। লিখেছেন, সরকার চাইলে আরও নোট ছাপিয়ে নিতেই পারে। সেইসঙ্গে প্রশ্ন করেছেন, তাঁর মত এক ক্ষুদ্র অর্থ প্রদানে ইচ্ছুক ব্যক্তি যিনি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক থেকে নেওয়া ঋণের ১০০ শতাংশ ফেরত দিতে চাইছেন তাঁর আর্জিকে এভাবেই বারবার উপেক্ষা করা হবে? মালিয়ার অফার, শর্তহীনভাবে পুরো টাকাটা তাঁর কাছ থেকে নেওয়া হোক এবং মামলা বন্ধ করা হোক।

মালিয়া আপাতত ব্রিটেনেই তাঁর মামলা লড়ছেন। এদিকে মালিয়াকে বারবার ডাকা সত্ত্বেও তিনি ইডি বা সিবিআইয়ের ডাকে সাড়া দিয়ে ভারতে ফেরেননি। এই অবস্থায় বারবার তাদের ডাকে সাড়া না দেওয়ায় ২০১৮ সালের জুনে মুম্বইয়ের বিশেষ আদালতে মামলা করে ইডি। সেই মামলায় ২০১৯ সালের শুরুতে রায় জানায় আদালত। আদালত তাদের রায়ে লিকার ব্যারন বিজয় মালিয়াকে পলাতক বলে ঘোষণা করে।

এখন প্রশ্ন হল এই পলাতক ঘোষণার মানে কী? আদালত কাউকে ‘পলাতক অর্থনৈতিক অপরাধী’ ঘোষণা করার পর মামলাকারী সংস্থা একটি বিশেষ ক্ষমতা হাতে পায়। তারা চাইলে ওই ব্যক্তির সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার অধিকার পেয়ে যায়। যা দিয়ে বকেয়া মেটানো হবে। বিজয় মালিয়ার সব সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার ক্ষমতা তারপরই হাতে পেয়ে যায় ইডি। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button