Business

বিজয় মালিয়ার ভারতে ফেরা সময়ের অপেক্ষা, জানুয়ারিতেই শাস্তি দিতে চায় সুপ্রিম কোর্ট

ঋণখেলাপিতে অভিযুক্ত শিল্পপতি বিজয় মালিয়ার ভারতে ফেরা এখন আর সময়ের অপেক্ষা। দেশে ফিরলেই তাঁকে শাস্তি দিতে চায় সুপ্রিম কোর্ট।

ব্রিটেন থেকে তাঁকে ভারতে ফেরানোর চেষ্টা অনেক আগেই শুরু হয়েছিল। মাঝে দেওয়াল হয়ে দাঁড়াচ্ছিল ব্রিটেনের আদালত। ব্রিটেনের আদালতে বারবার আবেদন জানিয়ে ভারতে প্রত্যাবর্তনের রাস্তা বন্ধ করে দিচ্ছিলেন দেশের এই শৌখিন শিল্পপতি।

তবে এখন ব্রিটেনের কোনও আদালতের দরজায় কড়া নাড়ার মত কোনও পথ আর বাকি নেই। ফলে তাঁকে এবার ভারতে ফেরানো সময়ের অপেক্ষা।

এখনও ব্রিটেনে কিছু গোপনীয় পদ্ধতিগত কাজ চলছে। যে সম্বন্ধে তারা ভারতকে কোনও বিস্তারিত তথ্য দেয়নি। তবে বিজয় মালিয়াকে এবার দেশে ফেরানো যাবে। এদিন কেন্দ্রের তরফে সুপ্রিম কোর্টকে এমনই জানানো হয়েছে।

সুপ্রিম কোর্ট এদিন সাফ জানিয়েছে, ২০১৭ সাল থেকে আদালত অবমাননার সাজা বিজয় মালিয়ার জন্য অপেক্ষা করে আছে। ২০২২ সালের জানুয়ারিতেই সেই সাজা শীর্ষ আদালত দিতে চায়। এজন্য তাঁকে দেশে ফিরতে হবে।

দেশে ফিরলেই যে বিজয় মালিয়া প্রথমে শীর্ষ আদালতের আদালত অবমাননার সাজার সম্মুখীন হতে চলেছেন তা এদিন পরিস্কার করে দিয়েছে আদালত।

আগামী ১৮ জানুয়ারি এই মামলার দিন ধার্য হয়েছে। এ থেকে এটা অনুমান করা যেতে পারে যে তার আগেই ভারতে ফিরছেন বিজয় মালিয়া।

২০১৬ সালের মার্চ মাসে ব্যক্তিগত কারণের দোহাই দিয়ে রাতারাতি ভারত থেকে পালিয়ে যান বিজয় মালিয়া। তারপর তিনি লন্ডনে রয়েছেন বলে জানতে পারা যায়।

ভারতের ১৭টি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক মিলিয়ে প্রায় সাড়ে ৯ হাজার কোটি টাকা ঋণখেলাপির অভিযোগে অভিযুক্ত বিজয় মালিয়াকে এরপর ইডি ও সিবিআই বারবার দেশে ফিরে তাদের সঙ্গে দেখা করতে বলে সমন পাঠায়। কিন্তু সাড়া দেননি মালিয়া। সুপ্রিম কোর্টকেও অগ্রাহ্য করে এই শিল্পপতি। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button