SciTech

আর ক্ষণিকের অপেক্ষা, তারপরেই মহাকাশে ঘটবে মহাজাগতিক বিস্ময়

আকাশ জুড়ে ‘সুপার ব্লু ব্লাড মুন’-কে চাক্ষুষ করতে চলেছেন বিশ্ববাসী। গ্রহণ শেষে আকাশের বুক চিরে জেগে উঠবে এক অন্য চাঁদ। অন্য পূর্ণিমার চাঁদের থেকে যার আকার আরও বেশি নিটোল, অনেকটাই বড়। আপাত উজ্জ্বল হলুদ আভার বদলে চাঁদ হয়ে উঠবে আরও বেশি লালচে। বছরের প্রথম মাসের দ্বিতীয় পূর্ণিমার সেই চাঁদের নবরূপ দেখার অপেক্ষায় এখন পৃথিবীবাসী।

১৯৮২-র পর ২০১৮। ৩৬ বছর পর মহাকাশে আবির্ভূত হতে চলেছে ‘সুপার ব্লু ব্লাড মুন’। বুধবার বিকেল ৫টা ২০-র পর থেকে একমাত্র উপগ্রহকে আস্তে আস্তে ঢাকতে শুরু করবে পৃথিবী। ভারতের বুকে মূল গ্রহণ শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টা ২৫ মিনিট থেকে। গ্রহণের সেই ছায়া গিয়ে লাগবে চাঁদের গায়ে। প্রায় ঘণ্টাখানেক চাঁদহীন হয়ে যাবে পূর্ণিমার আকাশ। কিছু সময়ের বিরহ। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা বাজতেই ধীরে ধীরে পৃথিবীর ছায়া ছাড়িয়ে উঁকি দিয়ে উঠবে রক্তিম চাঁদ। তবে পূর্ণরূপে আত্মপ্রকাশ করতে অবশ্য লাগবে আরও কিছুটা সময়। ৮টার আশেপাশে ‘সুপার ব্লু ব্লাড মুন’ হয়ে আকাশের বুক জুড়ে রাজত্ব করবে চাঁদমামা।


মুহুর্তে পান আপডেট, Join আমাদের WhatsApp Channel

পুরো ঘটনার সাক্ষী হতে এরমধ্যেই কোমর বেঁধে লেগে পড়েছেন বিশ্ববাসী। ভারত, রাশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, চিন, থাইল্যান্ডবাসীর ‘সুপার ব্লু ব্লাড মুন’ চাক্ষুষ করার সুযোগ তো আছেই। চাঁদের অনন্য রূপ প্রত্যক্ষের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হবেন না আমেরিকা ও ইউরোপের বেশ কিছু অংশের মানুষ। শুধু স্বচ্ছ মেঘহীন আকাশ আর সুন্দর আবহাওয়া যেন রাত অবধি থাকে। এটাই এখন সকলের একমাত্র প্রার্থনা।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *