SciTech

কবরে মিলল পৃথিবীর আদি মুক্তোর সন্ধান

মুক্তো তো সকলেই দেখেছেন। এখন তো মুক্তোর চাষও হয়। এই মুক্তো মানুষ প্রথম ব্যবহার করে কয়েক হাজার বছর আগে। কবে, তারই খোঁজ মিলল একটি কবরে।

কবর খুঁড়ে সত্যি বার করে আনার আপ্তবাক্য যে এভাবে মুক্তোর ক্ষেত্রেও সত্যি হয়ে যাবে তা বোধহয় বোঝা যায়নি। কিন্তু সেটাই হয়েছে। একটি কবর খুঁড়ে সেই সন্ধানই পেলেন গবেষকেরা।

কবরেই এতদিন বছরের পর বছর চাপা পড়েছিল প্রাচীন মুক্তোটি। যার বয়স পরীক্ষা করে পাওয়া গিয়েছে। গবেষকেরা বলছেন এই মুক্তোর বয়স সাড়ে ৬ হাজার বছর। এটাই ছিল পৃথিবীর আদি মুক্তো, যা ব্যবহার করেছিল মানুষ।

মুক্তো তো ঝিনুকের গর্ভে তৈরি হয়। ফলে ঝিনুকের গর্ভে কবে প্রথম মুক্তো তৈরি হয়েছিল তা অজানা। তবে জলের তলায় ডুব দিয়ে ঝিনুক তুলে তার পেট থেকে মুক্তো বার করে তা ব্যবহার করা হয়েছিল সাড়ে ৬ হাজার বছর আগে এটাও গবেষকদের অবাক করেছে।

কাতারের একটি কবর থেকে এই মুক্তোটি পাওয়া গিয়েছে। যা সাড়ে ৬ হাজার বছর আগে মানুষ ব্যবহার করেছিল। কাতার এখন একটি তেল সমৃদ্ধ দেশ।

১৯৪০ সালের পর থেকে সেখানে অর্থনীতির প্রধান স্তম্ভই তেল উত্তোলন। কিন্তু তার আগে সেখানকার মানুষের প্রধান পেশাই ছিল ঝিনুক তুলে তা থেকে মুক্তো বার করে আনা।

কাঠের তৈরি নৌকায় করে তাঁরা বেরিয়ে পড়তেন সমুদ্রে। তারপর গভীর সমুদ্রে গিয়ে সেখানে তাঁরা ঝাঁপ দিতেন জলে। জলের তলায় যাওয়ার কোনও পোশাক ছাড়া, কোনও অক্সিজেন সিলিন্ডার ছাড়া। সেভাবেই তাঁরা সাঁতরে চলে যেতেন সমুদ্রের তলদেশে।

তারপর সেখান থেকে তুলে আনতেন ঝিনুক। যার পেটে থাকে ঝলমলে মুক্তো। সেটা যে সাড়ে ৬ হাজার বছর আগেও হত তা দেখে হতবাক বিজ্ঞানীরা। হয়তো এই আবিষ্কার এক নয়া ইতিহাস তৈরি করল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.