Tuesday , June 25 2019
Varanasi
ফাইল : দশাশ্বমেধ ঘাট, বারাণসী, নিজস্ব চিত্র

মন্দিরের শহর বারাণসীতে এবার ঝুলে যাতায়াত করবেন মানুষ

মন্দিরের শহর বলেই পরিচিত বারাণসী। খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর লোকসভা কেন্দ্র। ভারতের ইতিহাস সহ আধ্যাত্ম্য ইতিহাসের সঙ্গে বারাণসী ওতপ্রতভাবে জড়িত। সুপ্রাচীন শহর হিসাবেও এর পরিচিতি দেশের সীমা পার করে বিদেশে, বহু চর্চিতও। বহু পুরনো সময়ে গড়ে ওঠার ফলে বারাণসী খুবই ঘিঞ্জি শহর। রাস্তা সরু। যাতায়াতের পথ খুবই সংকীর্ণ। এমন ঘিঞ্জি শহরে স্থানীয় বাসিন্দাদের ভিড় তো রয়েছেই। সেইসঙ্গে সারা বছর পর্যটকদের ভিড় লেগে থাকে।

অপরিসর রাস্তা হওয়ায় যাতায়াত ব্যবস্থা ক্রমেই চ্যালেঞ্জের মুখে পড়ছে। তাই এখানে যানবাহনের সমস্যা দূর করতে অনেকদিন ধরেই ভাবনা চিন্তা চলছে। মোনো রেল বা পাতাল রেল এখানে চালু করার মত জায়গা নেই। তাই অন্য কী যানের বন্দোবস্ত হতে পারে তা নিয়ে ভাবনা চলছিল। আর সেখানেই অবশেষে মিলল সমাধান।

বারাণসী শহরে মানুষের যাতায়াত সুগম করতে এবার চালু হতে চলেছে রোপওয়ে। অর্থাৎ দড়ি বেয়ে মানুষ পৌঁছে যাবেন গন্তব্যে। শহরের মধ্যে দিয়েই যাতায়াত। কিন্তু সড়ক পথে নয়। তার চেয়ে কিছুটা উপর দিয়ে। হাওয়ায় ভেসে দড়ি ধরে মানুষ এবার যাতায়াত করবেন বারাণসী শহরে। এই পরিকল্পনায় সিলমোহরও পড়েছে।

আপাতত ৩টি রুটে রোপওয়ে চালু করার কথা ভাবা হচ্ছে। এর পুরো দায়িত্বে থাকছে রেল ইন্ডিয়া টেকনিক্যাল এন্ড ইকোনমিক সার্ভিস বা রাইটস। রোপওয়ে একটি সঠিক সমাধান বলেই রাইটসের তরফে জানানো হয়েছে। যে ৩টি রুটে প্রথমে এই রোপওয়ে চালু হবে তার একটি হল শিবপুর থেকে সিগরা ও লঙ্গা। দ্বিতীয় রুট হবে কাছেরি থেকে লাহুরাবীর এবং ময়দাগি থেকে গোদোলিয়া পর্যন্ত। তৃতীয় রুট হবে লহরতারা থেকে বেনারস হিন্দু ইউনিভার্সিটি পর্যন্ত। এছাড়া বারাণসী ধরে জলপথে যাত্রাও ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *