National

নজিরবিহীন কাণ্ড, জুন মাসে তুষারপাত দেখল কাশ্মীর

এখন কাশ্মীরেও ভরা গরমের দিন। সারা দেশ তো গরমে পুড়ছেই। এ সময়ে কাশ্মীরেরও অনেক জায়গায় পারদ সেখানকার তুলনায় চড়াই হয়। ফলে এ সময়ে তুষারপাতের কথাই নয়। বৃষ্টি মাঝেমধ্যে হতে পারে। সঙ্গে থাকে ঝলমলে রোদ। কিন্তু তুষারপাতের প্রশ্নই নেই। কিন্তু সেই কাশ্মীরেই ভরা জুন মাসের গরমে তুষারপাত হল। স্থানীয় মানুষই তা দেখে চমকে উঠেছেন। এমন কাণ্ড এর আগে কখনও দেখেছেন বলে তাঁদের মনে পড়ছে না। সেই নজিরবিহীন ঘটনার সাক্ষী হলেন তাঁরা।

কাশ্মীরের বালতাল ও সোনমার্গের পাহাড়ি এলাকায় বুধবার তুষারপাত হয়েছে। সাদা বরফে ঢেকেছে পাহাড়ের ওপরের অংশগুলি। এছাড়া কার্গিল জেলার দ্রাস শহর ও জোজিলা পাসে বরফ পড়েছে। এমন সময় কাশ্মীরে বরফ পড়া দেখে হতবাক হচ্ছেন সেখানকার স্থানীয়রাই। হাওয়া অফিসের কাছেও প্রকৃতির এই খামখেয়ালিপনা রীতিমত অবাক করা বিষয় হয়ে সামনে এসেছে।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

তুষারপাত নিয়ে অবাক হওয়ার পাশাপাশি এদিন কাশ্মীরে ভূমিকম্পও হয়। ফলে তার একটা আতঙ্ক ছড়িয়েছিল সকালে। অন্যদিকে কাশ্মীরের সমতল জুড়ে প্রবল বৃষ্টিও হয়েছে বুধবার। বারামুল্লা জেলায় প্রবল বৃষ্টি হয়েছে। এখানে শ্রীনগর-মুজফ্ফরাবাদ রোডের মাঝে হাঞ্জিওয়ারা এলাকায় রাস্তা জলের তলায় চলে যায়। ফলে যান চলাচল ব্যাহত হয়।

কাশ্মীরের বারামুল্লা, বদগাম ও বান্দিপোরা জেলার অনেক জায়গায় হড়কা বান দেখা গেছে। তবে বুধবার রাত থেকে অবস্থার উন্নতি হবে বলেই জানায় হাওয়া অফিস। তাদের পূর্বাভাস বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই ফের উপত্যকায় ঝলমলে রোদ উঠবে। তবে বৃষ্টির জেরে বেশ কিছু জায়গায় তাপমাত্রার পারদ বেশ কিছুটা নেমেছে। শ্রীনগরে বুধবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০.৫ ডিগ্রি ছিল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button