SciTech

করোনার জেরে খেলার প্রবণতা বেড়েছে, কীভাবে জানাল সমীক্ষা

করোনার জেরে গত ১ বছরে ভারতে মানুষের জীবনযাত্রায় বেশ কিছু দীর্ঘস্থায়ী পরিবর্তন এসেছে। ভারতীয়দের খেলার প্রতি আগ্রহ বেড়েছে। কীভাবে তারই খোঁজ দিল সমীক্ষা।

বেঙ্গালুরু : কোভিড-১৯ অতিমারি মানুষের জীবনযাত্রায় অনেক দীর্ঘস্থায়ী পরিবর্তন এনেছে। এই সামাজিক দূরত্বের যুগে মানুষ বেশিরভাগ সময়টাই বাড়িতে কাটিয়েছেন। এখনও করোনা বাড়তে থাকায় কাজের বাইরে বড় একটা বাইরে না থাকার দিকেই নতুন করে ঝুঁকছেন ভারতের বিভিন্ন প্রান্তের বাসিন্দারা।

তাই সময় কাটানোর জন্য মোবাইলে আরও বেশি করে নির্ভরশীল হয়ে পড়ছেন তাঁরা। মোবাইলে সিনেমা দেখা, গান শোনার থেকেও জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে মোবাইলে গেম খেলা।

করোনার সময় থেকে নানা রকমের মোবাইল গেমে বেশি করে মজেছেন মানুষজন। মানুষ কতটা মোবাইল গেমের প্রতি আসক্ত তাই নিয়ে একটি সমীক্ষায় উঠে এসেছে বিস্ময়কর তথ্য। অতিমারি পরিস্থিতির জেরে এখন ভারতে মোবাইল ব্যবহারকারী প্রতি ২ জনের মধ্যে ১ জন ব্যক্তি মোবাইল গেমে আসক্ত।

শিশু থেকে বৃদ্ধ, সবাই খেলছেন নিজেদের পছন্দসই মোবাইল গেম। তবে বয়স অনুযায়ী বদলে যাচ্ছে তাঁদের গেমের পছন্দগুলি। যেমন ৪৫ বছরের উর্ধ্বে যাঁরা, তাঁরা পছন্দ করছেন অনেকে মিলে যে গেমগুলিতে অংশগ্রহণ করা যায় সেই গেমগুলি। পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের সাথে সময় কাটানোর এক অন্য পন্থা বেছে নিচ্ছেন তাঁরা।


সমীক্ষায় দেখা গেছে সারা দেশে মোবাইলে গেম খেলা ব্যক্তিদের মধ্যে ৪৩ শতাংশ মহিলা। তাঁদের মধ্যে ১২ শতাংশ ২৫ থেকে ৪৪ বছরের মধ্যে আর ২৮ শতাংশ ৪৫ বছরের ঊর্ধ্বে। ৪০ শতাংশ ভারতীয়দের মোবাইলে একের অধিক গেম লোড করা থাকে।

১০ মিনিট থেকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা, মানুষ মোবাইল গেমে সময় কাটিয়েছেন। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিদের মধ্যে ৪০ শতাংশ মানুষ জানিয়েছেন তাঁরা সাধারণত কাজের ফাঁকে বা খাওয়ার সময় মিনিট দশেক মোবাইলে গেম খেলে থাকেন।

আবার উল্টোদিকে যাঁরা পেশাদার মোবাইল গেমের খেলোয়াড় তাঁরা দিনের অনেকটা সময়ই কাটান গেম খেলে। তাস বা ধাঁধা জাতীয় খেলা সকলের মধ্যেই জনপ্রিয়। তবে তরুণ প্রজন্ম বা ‘জেন-জি’-রা মাল্টিপ্লেয়ার অনলাইন ব্যাটল এরিনা বা ‘মোবা’-র মত অ্যাকশন গেম বেশি পছন্দ করছেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button