Health

করোনার মাঝেই ফের ইবোলার থাবা ২ দেশে

করোনা অতিমারি নিয়ে এখনও নাজেহাল গোটা বিশ্ব। তার মধ্যেই মরার ওপর খাঁড়ার ঘায়ের মত হাজির হল ইবোলা। ২টি দেশে এখনও থাবা বসিয়েছে মারণ ইবোলা ভাইরাস।

আদ্দিস আবাবা : করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এখনও কমেনি। তার ওপর আফ্রিকায় আবার ফিরে এল ইবোলা। করোনা অতিমারি প্রথমদিকে আফ্রিকায় সেভাবে থাবা বসাতে পারেনি। তবে বেশ কিছু মাস ধরে আফ্রিকা মহাদেশে করোনা সংক্রমণ কিছুটা বেড়েছে।

তবে আফ্রিকার অধিবাসীদের কাছে করোনা নয়, ভয়ের কারণ হল ইবোলা। বছর সাতেক আগে আফ্রিকা মহাদেশের অন্তর্গত বেশ কিছু দেশে ছড়িয়েছিল এই অতি মারাত্মক ভাইরাস। এই ভাইরাস অত্যন্ত ছোঁয়াচে তো বটেই, সেইসঙ্গে এই ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যুর হারও যথেষ্ট বেশি।

দ্যা আফ্রিকা সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন জানিয়েছে ২ দেশ গিনি ও কঙ্গো-তে পুনরায় ইবোলায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হল ২ দেশেই মৃত্যুর হার ৫০ শতাংশ।

গিনিতে ১৮ জনের মধ্যে ৯ জন ও কঙ্গোতে ১২ জনের মধ্যে ৬ জনেরই মৃত্যু হয়েছে ইতিমধ্যে। আক্রান্তের তালিকায় মোট ৭ জন স্বাস্থ্যকর্মীও রয়েছেন। ২টি দেশ মিলিয়ে মোট ৩০ জন আক্রান্তের মধ্যে ৮ জন সুস্থও হয়েছেন বলে জানাচ্ছে দ্যা আফ্রিকা সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন।

আফ্রিকার আর কোনও দেশে এখনও ইবোলায় আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। তবে সবকটি দেশেই স্ক্রিনিং পোস্ট বসেছে। যেখানে কারও মধ্যে ইবোলার কোনও উপসর্গ আছে কিনা তা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

ইবোলা মহামারি আফ্রিকার মানুষদের মনে গভীর দাগ কেটে গিয়েছে। অজানা অসুখে মানুষের মৃত্যু ও তারসাথে তাঁদের যাঁরা সেবা করেছেন তাঁদেরও বেশিরভাগের একে একে মৃত্যু ঘটেছিল সেই সময়।

সারা মহাদেশে মোট ২৮ হাজার ৬০০টি কেস নথিভুক্ত হয়েছিল। তারমধ্যে ১১ হাজার ৩০০ জনের মৃত্যু ঘটে। করোনায় মৃত্যুর হারের চেয়ে যা অনেকটাই বেশি। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button