Bangladesh
করোনা রুখতে বাংলাদেশের বাসে চলছে স্যানিটাইজেশনের কাজ, ছবি - আইএএনএস

বাংলাদেশে বন্ধ রেল, বাস, ফেরি

কোভিড-১৯-কে ঠেকাতে পড়শি বাংলাদেশেও বন্ধ হয়ে গেল বাস, ট্রেন। বন্ধ ফেরি যোগাযোগও। বাংলাদেশ সরকার গত সোমবারই ঘোষণা করেছিল যে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সরকারি ও বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকবে। তারপরই দেখা যায় বিভিন্ন ফেরিঘাটে মানুষের ঢল নামে। বাস, ট্রেনেও প্রবল ভিড়। সকলেই বাড়ি ফিরে যেতে হুড়োহুড়ি লাগিয়ে দেন। এরপরই বাংলাদেশ সরকার বুধবার থেকে বন্ধ করে দিল দেশের মধ্যে বাস চলাচল। কোনও যাত্রীবাহী বাস চলাচল করছে না দেশে।

বাংলাদেশের একটা অন্যতম যোগাযোগ মাধ্যম ফেরি। সেই ফেরিঘাট স্তব্ধ। কারণ ফেরি চলাচল বন্ধ। বন্ধ রেল পরিবহণ। বন্ধ দূরপাল্লার বাসও। ফলে এখন যে যেখানে আছেন সেখানেই থাকতে হবে। দূরে কোথাও যাওয়া সম্ভব নয়। পরিবহণ স্তব্ধ মানে অনেকটাই দেশ স্তব্ধ হয়ে পড়া। বাংলাদেশ সরকার এখন করোনা রুখতে বাংলাদেশে ছুটি ঘোষণা করেছে।

যাতে সবকিছু ঠিকঠাক এগোয় সেদিকে নজর রাখার জন্য এবং কোনও অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে সঙ্গে সেনাও নামানো হবে বলে জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। বাংলাদেশে এখন করোনার শিকার ৩৩ জন। মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। তবে করোনা ছড়াতে শুরু করলে যেভাবে দাবানলের মত ছড়ায় তাতে লাগাম দিতেই বাংলাদেশ সরকার আগে থেকে পদক্ষেপ করল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *