State

ঝাড়খণ্ডে ফলন, বাংলার মরণ

কে বলে ড্রাগের নেশা সর্বনাশা। আজও ঝাড়খণ্ড থেকে আসা ড্রাগের কাঁচামালে পকেট ভরছে বাংলার। অভিযোগ, ড্রাগ তৈরির নেশা ছড়িয়ে পড়ছে বাংলার বীরভূম, মুর্শিদাবাদ ও মালদহে।

২০১২ সালে বীরভূম জেলা প্রশাসন এই জেলায় পোস্ত চাষ নির্মূল করে দেয়। পপি ফ্রি ডিসট্রিক্ট ঘোষিত হয় বীরভূম। কিন্তু ড্রাগের এই সহজলভ্য কাঁচামাল থেকে পাওয়া বিপুল মুনাফার নেশা ছাড়তে পারেননি ব্যবসায়ীরা। বীরভূমের মূলত খয়রাশোল, কাঁকরতলা ব্লকে পোস্ত চাষের রমরমা ছিল একসময়। বীরভূমের এই ২ ব্লকের প্রতিবেশি ঝাড়খণ্ড রাজ্য।

অভিযোগ, চোরা পথে শুরু হয় ঝাড়খণ্ড থেকে পোস্তর আঠা ও খোলা আসা। যা থেকে তৈরি হয় নিষিদ্ধ হেরোইন। জামালপুর সহ কাঁকরতলার বেশ কিছু গ্রামের অসাধু ব্যবসায়ীদের ভালই জানা আছে এই কাঁচামাল থেকে হেরোইন তৈরির বাজার। অভিযোগ, সেই মতো শুরু হয় মুর্শিদাবাদ, মালদহে কাঁচামাল পাচার। সহজে মুনাফা লোটা শুরু হয় ঝাড়খণ্ডের পোস্ত চাষিদের। প্রতিবেশি রাজ্যে পোস্ত চাষে ছাড় এভাবেই বাংলা তথা সারা দেশে ছড়িয়ে দিচ্ছে হেরোইনের মতো অর্গানিক ড্রাগ।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button