World

মানুষের দেখা নেই, মহানন্দে খেলায় মাতল শতাধিক ডলফিন

লকডাউনে মানুষের দেখা নেই। ফলে অনেক জায়গাতেই বন্যপ্রাণকে এমন জায়গায় মহানন্দে খেলতে বা ঘুরতে দেখা যাচ্ছে। যেমন দেখা গেল একটি বিশেষ প্রজাতির শতাধিক ডলফিনকে।

সমুদ্রে টহল দিচ্ছিল একটি জাহাজ। হঠাৎই নজরে পড়ে যে জাহাজটির পাশে পাশে একদল ডলফিন চলেছে। অবাক হয়ে যান টহলরত আধিকারিকরা। এমন একঝাঁক বটলনোজ ডলফিন সহজে দেখা যায়না। বিষয়টি নজর কাড়ল থাইল্যান্ডের মু কো সিমিলান ন্যাশনাল পার্ক আইল্যান্ডস-এর আধিকারিকদের। তাঁরা প্রথমে কিছুটা অবাকই হয়ে যান। এমন বিরল দৃশ্য বড় একটা দেখা যায়না আন্দামান সাগরের বুকে।

এখন থাইল্যান্ডের সব জাতীয় উদ্যানই বন্ধ আছে। তবে আধিকারিকরা জলে প্রয়োজনমত টহল দিচ্ছেন। সেইসময়ই এই প্রজাতির ডলফিনগুলিকে জলে মহানন্দে খেলতে দেখেন তাঁরা। সাধারণ সময়ে এই জলে জাহাজের আনাগোনা থাকে। মানুষ ভেসে বেড়ান এখানে। বোট চলে। ফলে এখানে এসব ডলফিন খেলতে হাজির হয়না। লকডাউনের জেরে এখন স্তব্ধ গোটা বিশ্ব। এতদিন ওই জলে মানুষের উপদ্রব বন্ধ থাকায় বোধহয় সাহস পেয়েছিল ডলফিনগুলি।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

ওই আধিকারিকরা জানান, তাঁদের মনে হচ্ছিল যেন ডলফিনগুলি তাঁদেরই ধন্যবাদ জানাচ্ছিল। খেলতে খেলতে তারা জাহাজের খুব কাছে চলে আসছিল। ভয়ও পাচ্ছিল না। একসঙ্গে বটলনোজ ডলফিনের এমন ঝাঁক তাঁরা আগে বড় একটা দেখেননি বলেই জানিয়েছেন আধিকারিকরা। বিশ্বের প্রায় সব শহরই সুনসান। সেখানে তাই মাঝেমধ্যেই দেখা মিলছে গহন অরণ্যের জন্তু জানোয়ারদের। সমুদ্রেও তেমনই হয়েছে। সেখানেও মানুষের আনাগোনা বন্ধ হওয়ায় নিজেদের স্বাভাবিক ছন্দ ফিরে পেয়েছে জলের প্রাণ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *