World

সামনে এল স্বেচ্ছামৃত্যুর যন্ত্র, ১ মিনিটে যন্ত্রণাহীন মৃত্যু নিশ্চিত

সামনে এল একটি নয়া মেশিন। মৃত্যুর মেশিন। যে মেশিন একজন স্বেচ্ছামৃত্যুকামীর ইচ্ছা পূরণ করতে নেবে মাত্র ১ মিনিট। তাও আবার যন্ত্রণা ছাড়াই।

স্বেচ্ছামৃত্যু সব দেশে আইনসংগত নয়। ফলে সে চেষ্টা করলে শাস্তির মুখে পড়তে হবে। তবে এ নিয়ে বিশ্বজুড়েই চলছে আন্দোলন। স্বেচ্ছামৃত্যুকে আইনসংগত করতে দাবি উঠছে বিভিন্ন মহল থেকে।

সুইৎজারল্যান্ডে আইনসিদ্ধ হয়েছে স্বেচ্ছামৃত্যু বা ইউথেনেসিয়া। সেখানকার একটি সংস্থা এই স্বেচ্ছামৃত্যুকে যন্ত্রণাহীন করতে একটি মেশিনও তৈরি করে ফেলেছে।

সংস্থার দাবি মেশিনটির সাহায্যে মৃত্যু হবে যন্ত্রণাহীন। তাও আবার ১ মিনিটেরও কম সময়ে। এই যন্ত্রের সাহায্যে মানুষের দেহের অক্সিজেন মাত্রা অতি দ্রুত কমিয়ে দেওয়া যাবে। যার ফলে ওই ব্যক্তির ১ মিনিটেরও কম সময়ে মৃত্যু হবে।

এই যন্ত্র দেখতে অনেকটা কফিনের মত। মৃত্যুর জন্য এই কফিনে প্রবেশ করলে ওই ব্যক্তির দেহ আর তিনি নাড়ানোর অবস্থায় থাকবেন না। কেবল চোখের পাতা ফেলতে পারবেন।

চোখের পাতার সাহায্যে এই যন্ত্রকে কার্যকরীও করা যায়। চোখের ইশারায় যন্ত্র কাজ শুরু করবে। তারপর ১ মিনিটের মধ্যেই ইহলোক ত্যাগ করবেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি।

ডক্টর ডেথ নামে একটি সংস্থা এই যন্ত্রের জনক। যারা এই মৃত্যু যন্ত্রটির নাম দিয়েছে সারকো। সংস্থার আশা সামনের বছরেই এই যন্ত্র সুইৎজারল্যান্ডের বাজারে পাওয়া যাবে।

তবে অনেকে এর সমালোচনাও করেছেন। একে একটি জাঁকজমকপূর্ণ আত্মহননের যন্ত্র হিসাবেই দেখছেন তাঁরা। সুইৎজারল্যান্ডে যন্ত্রটি ইতিমধ্যেই প্রদর্শিত হয়েছে। তবে এই যন্ত্রকে অনেকেই খুব সৃজনশীল চিন্তা বলে মনে করছেননা।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.