SciTech

সিনেমা থেকে মিলল আইডিয়া, জন্ম নিল শালু

একটি দক্ষিণী সিনেমা হাতে তুলে দিয়েছিল আইডিয়াটা। সিনেমাটা দেখার পরই বম্বে আইআইটি-র কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের শিক্ষকের মাথায় খেলে আইডিয়া। তারপর তাঁর হাত ধরেই ৩ বছরে জন্ম নিল শালু।

লখনউ : ‘রোবট’ সিনেমায় দক্ষিণী সুপারস্টার রজনীকান্ত অভিনীত বিখ্যাত চরিত্র ‘চিট্টি’-র কথা নিশ্চয়ই মনে আছে। মানুষের মত দেখতে, কিন্তু মানুষের থেকে অনেক বেশি শক্তি ও বুদ্ধি ধরত চিট্টি।

সেই চিট্টিকে দেখেই হঠাৎ মাথায় একটা পরিকল্পনা খেলে যায় আইআইটি বম্বের কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্সের শিক্ষক দীনেশ প্যাটেলের। জড়ো করে ফেলেন প্লাস্টিক, কার্ডবোর্ড, কাঠ, অ্যালুমিনিয়ামের কিছু ফেলে দেওয়া অংশ।

এসব ফেলে দেওয়া জিনিসপত্রের সাহায্যে নিজের মেধাকে কাজে লাগিয়ে তিনি জন্ম দেন শালুর। ‘শালু’ একটি সামাজিক রোবট। ৯টি স্থানীয় ভাষায় অনর্গল কথা বলতে পারে শালু। পারে ৩৮টি বিদেশি ভাষাতেও কথা বলতে।

শালু মনে করিয়ে দেয় হংকং-এর হ্যানসন রোবটিক্স-এর তৈরি বিখ্যাত হিউম্যানয়েড ‘সোফিয়া’-র কথা। শালুও সোফিয়ার মতই মুখে বিভিন্ন অনুভূতি প্রকাশ করতে পারে।


পারে মানুষকে অভিবাদন জানাতে। খবরের কাগজ পড়া থেকে রকমারি হাজার রান্নার রেসিপি গড়গড় করে বলে দেওয়া শালুর কাছে কোনও ব্যাপারই নয়।

শালুর সৃষ্টি হওয়া সম্বন্ধেও জানিয়েছেন শালুর স্রষ্টা দীনেশ প্যাটেল। মাত্র ৫০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে এই প্রোটোটাইপ রোবট শালুকে তৈরি করতে।

৩ বছরের পরিশ্রমে এই রোবট তৈরি করেছেন তিনি। পেশায় শিক্ষক দীনেশ চান শালুকে শিক্ষাদানের কাজেই ব্যবহার করা হোক। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button