World

দুধ আর মুরগির মাংস দোকানে দেখা গেলেও কেনা যাচ্ছেনা এই দেশে

দোকানে দুধ দেখা যাচ্ছে। মুরগির দোকানে মুরগির মাংসও চোখে পড়ছে। কিন্তু দেখা গেলেও এ দেশে তা কেনা ভুলতে বসেছেন অধিকাংশ মানুষ।

ভারতে মুরগির মাংস বা দুধের দাম সম্বন্ধে ধারনা অনেকেরই রয়েছে। সেখানে প্রতিবেশি দেশে এখন গোটা মুরগির দাম দাঁড়িয়েছে ৪৮০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি। অনুমেয় যে ভারতে গোটা মুরগির দামের তুলনায় তা দ্বিগুণেরও অনেক বেশি।

অন্যদিকে সেখানে কাটা মুরগি, যা অধিকাংশ মানুষ কিনে থাকেন, তার দাম দাঁড়িয়েছে প্রায় ৮০০ টাকা কেজি। আর যাঁরা বাড়িতে হাড় ছাড়া মাংসের পদ রাঁধতে চান তাঁরা যদি বোনলেস বা হাড় ছাড়া মাংস দোকান থেকে কিনে নিয়ে যেতে চান তাহলে তাঁদের গুনতে হচ্ছে কেজি প্রতি ১ হাজার থেকে ১ হাজার ১০০ টাকা।

ফলে আমজনতার কাছে মুরগির মাংস এখন দেখা সম্ভব হচ্ছে, কেনা নয়। বাড়িতে ১ কেজি মুরগির মাংস নিয়ে যেতে গেলে পকেট ফাঁকা হওয়ার যোগাড় হয়েছে।

একই পরিস্থিতি দুধেরও। পাকিস্তানের করাচি শহরেই এখন খোলা দুধ বিক্রি হচ্ছে ২১০ টাকা লিটার দামে। প্যাকেটবন্দি দুধ হলে তার দাম আরও বেশি।


দুধের দাম গত সপ্তাহেও পাকিস্তানে লিটার প্রতি ২০০ টাকার নিচে ছিল। এখন তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২১০ টাকা। যা আরও বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে।

দুধ, মুরগির মাংস থেকে চা, এসবই নিত্যপ্রয়োজনীয়ের তালিকাতেই পড়ে। সেসবের দাম এখন দরিদ্র থেকে মধ্যবিত্তের হাতের বাইরে চলে গেছে।

প্রসঙ্গত পাকিস্তানে আর্থিক অস্থিরতা ভয়ংকর অবস্থায় পৌঁছে গেছে। ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় অধিকাংশ জিনিসের দামই লাগামছাড়া ভাবে বেড়ে চলেছে। কোথায় গিয়ে এই অবস্থা থামবে তাও কারও জানা নেই। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button