National

রেকর্ড উচ্চতায় দেশে দৈনিক মৃত্যু, মোট মৃত্যু ছাড়াল আড়াই লক্ষ

ভারতে দৈনিক সংক্রমণ গত দিনের তুলনায় ফের কিছুটা বাড়ল। এদিকে এদিন দৈনিক মৃতের সংখ্যা রেকর্ড উচ্চতা ছুঁয়েছে। অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা অবশ্য দেশে কমল।

দেশে করোনা সংক্রমণ এক ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে। তবে বৈজ্ঞানিকরা বলছেন দেশ করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের চূড়া স্পর্শ করে ফেলেছে। এবার হয়তো নামবে সংক্রমণ।

তার একটা ছাপ গত ২ দিনে পাওয়া গেলেও এদিন ফের সংক্রমণ বাড়ল। এদিন দেশে করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৪৮ হাজার ৪২১ জন। এদিন দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৩৩ লক্ষ ৪০ হাজার ৯৩৮ জন।

এদিন ১৯ লক্ষ ৮৩ হাজার ৮০৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে দেশে। গত দিনের চেয়ে প্রায় দেড় লক্ষ বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে এদিন।

এদিকে দেশে গত একদিনে মৃত্যু রেকর্ড উচ্চতা ছুঁয়েছে। এদিন মৃত্যু হয়েছে ৪ হাজার ২০৫ জনের। একদিনে দেশে এত মানুষের করোনায় মৃত্যু এর আগে হয়নি।


দেশে এখন মোট মৃতের সংখ্যা ২ লক্ষ ৫৪ হাজার ১৯৭ জন। দেশে এখন মৃত্যু হার দাঁড়িয়েছে ১.০৯ শতাংশে। মহারাষ্ট্রে এদিন মৃত্যু হয়েছে ৭৯৩ জনের।

এছাড়া দিল্লিতে ৩৪৭ জনের, ছত্তিসগড়ে ১৯৯ জনের, উত্তরপ্রদেশে ৩০১ জনের, কর্ণাটকে ৪৮০ জনের, গুজরাটে ১১৮ জনের, রাজস্থানে ১৬৯ জনের, পঞ্জাবে ২১৪ জনের, উত্তরাখণ্ডে ১১৮ জনের, তামিলনাড়ুতে ২৯৮ জনের, হরিয়ানায় ১৪৪ জনের ও পশ্চিমবঙ্গে ১৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুতে ২ অঙ্কে দাঁড়িয়ে দেশের অনেক রাজ্য। দেশে মৃত্যুর হার দাঁড়িয়েছে ১.০৯ শতাংশ।

দেশে এদিনও অ্যাকটিভ রোগীর দৈনিক বৃদ্ধি হয়নি। বরং দেশে অ্যাকটিভ রোগী এদিনও কমল। ১১ হাজার ১২২ জন অ্যাকটিভ রোগী কমেছে দেশে। দেশে এখন কমে ১৫.৮৭ শতাংশ হয়েছে অ্যাকটিভ রোগীর হার।

এদিকে দেশে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যাও এদিন নজর কেড়েছে। সংক্রমিতের চেয়ে এদিন সুস্থ হয়ে উঠেছেন বেশি মানুষ। গত একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লক্ষ ৫৫ হাজার ৩৩৮ জন। সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮৩.০৪ শতাংশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button