National

দ্বিতীয় দেশ হিসাবে সংক্রমণে ১ কোটি পার করল ভারত

অবশেষে সংক্রমণে ১ কোটি পার করে গেল ভারত। বিশ্বে সংক্রমণে এখনও একটাই দেশ ১ কোটি পার করেছিল। ভারত হল দ্বিতীয় দেশ।

নয়াদিল্লি : নভেম্বর জুড়ে সংক্রমণের ওঠানামা দেখেছেন দেশবাসী। ৪০ হাজার বা ৩০ হাজারি ঘরেই ওঠানামা চলেছে। ডিসেম্বরে পড়ে টানা ৩০ হাজারি ঘর ধরে রেখেছিল সংক্রমণ। গত কদিনে তা ২০ হাজারি ঘরে প্রবেশ করেছে।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

দেশে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ২৫ হাজার ১৫২ জন। তবে এদিন যেটা সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য তা হল বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হিসাবে সংক্রমণে ১ কোটি পার করল ভারত।

এর আগে একমাত্র আমেরিকাই সংক্রমণে ১ কোটি পার করেছিল। তারপর এদিন তার সঙ্গে যুক্ত হল ভারতের নাম। গত একদিনে দেশে ১১ লক্ষ ৭১ হাজার ৮৬৮টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে কিছুটা বেড়েছে নমুনা পরীক্ষা।

গত একদিনের রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির হাত ধরে ১ কোটি পার করেছে ভারত। ১ কোটি ৪ হাজার ৫৯৯ জনে দাঁড়িয়েছে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা।

এদিন ফের সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা সংক্রমিতের চেয়ে অনেক বেশি হয়েছে। যারফলে দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ৩ লক্ষ ৮ হাজার ৭৫১ জনে। একদিনে কমেছে ৫ হাজার ৮০ জন। দেশে এখন করোনা অ্যাকটিভ রোগীর হার ৩.০৯ শতাংশ।

নভেম্বরে দেশে দৈনিক মৃত্যু কখনও ৪০০ তো কখনও ৫০০-র ঘরেই অধিকাংশ সময় ঘোরাফেরা করেছে। ডিসেম্বর পড়েও সাধারণভাবে সেই একই অবস্থায় রয়ে গেছে দেশের দৈনিক মৃত্যু। তবে গত কদিনে ৩০০-র ঘরে নেমে এসেছে দৈনিক মৃত্যু।

গত একদিনে দেশে মৃত্যু হয়েছে ৩৪৭ জনের। এদিনের মৃতের সংখ্যার হাত ধরে দেশে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৪৫ হাজার ১৩৬ জন। ১.৪৫ শতাংশ মৃত্যুর হার রয়েছে দেশে।

এদিকে গত একদিনে দেশে রাজ্য ভিত্তিক যে মৃতের সংখ্যার খতিয়ান সামনে এসেছে তাতে করোনায় মৃত্যুর নিরিখে পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। গত একদিনে মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৭৫ জনের, দিল্লিতে মৃত্যু হয়েছে ৩৭ জনের, পশ্চিমবঙ্গে মৃত্যু হয়েছে ৪২ জনের।

করোনা রোগী ও মৃত্যু যেমন বেড়ে চলেছে তেমনই অন্যদিকে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার হার। গত একদিনে সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা সংক্রমিতের সংখ্যার চেয়ে বেশি হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২৯ হাজার ৮৮৫ জন। যার হাত ধরে দেশে মোট করোনামুক্ত মানুষের সংখ্যা এদিন দাঁড়িয়েছে ৯৫ লক্ষ ৫০ হাজার ৭১২ জনে। দেশে সুস্থতার হার ৯৫.৪৬ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button