National

সন্তানের জন্মের ৪ দিনের মাথায় করোনায় মৃত মা

গত ২ মে এক কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন তিনি। আর বুধবার করোনায় মৃত্যু হল তাঁর। গোটা পরিবারকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে।

গত ২ মে একই সঙ্গে পরিবারে এসেছিল খুশির হাওয়া আর শোকের আবহ। ২ মে কন্যা সন্তানের জন্ম দেন এক ২৭ বছরের মহিলা। আর ওই দিনই দিল্লির একটি হাসপাতালে লিভারের সমস্যায় মৃত্যু হয় তাঁর শ্বশুরমশাইয়ের। পেশায় পুলিশ কনস্টেবল ওই মহিলা গত ১ এপ্রিল থেকেই ম্যাটারনিটি লিভ-এ ছিলেন। তারপর ২ মে তিনি জন্ম দেন সুস্থ শিশুর। ৪ মে ওই মহিলা ও সন্তানকে হাসপাতাল থেকে ছেড়েও দেওয়া হয়। যদিও কিছু উপসর্গ থাকায় মহিলার করোনা পরীক্ষার জন্য লালারস সংগ্রহ করা হয়।

গত বুধবার ওই মহিলার শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। সর্দি-জ্বর তো ছিলই। ওই অবস্থায় গাড়িতে স্ত্রীকে তুলে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে হাজির হন তাঁর স্বামী। কিন্তু উপসর্গ দেখে ওই হাসপাতাল মহিলাকে ভর্তি নেয়নি। প্রবল শ্বাসকষ্ট নিয়ে অবশেষে গাড়িতেই মৃত্যু হয় ওই মহিলার। তারপরই পরিবারের কাছে খবর আসে যে ওই মহিলার যে করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। তখনও মহিলার দেহ গাড়িতেই পড়ে ছিল।

তাঁর স্বামী করোনার কথা জানতে পেরে গাড়ি থেকে নেমে আসেন। খবর দেন স্বাস্থ্যকর্মীদের। নিজে আর হাত দেননি স্ত্রীর দেহে। ধারেকাছেও যাননি। পরে স্বাস্থ্যকর্মীরা সেখানে হাজির হয়ে ওই মহিলার দেহ উদ্ধার করেন। তাঁর স্বামীই জানিয়ে দেন দ্রুত যেন ওই মহিলার দাহ কাজ সম্পূর্ণ করে প্রশাসন। এদিকে ওই মহিলার করোনা ধরা পড়ায় তাঁর স্বামী, সদ্যোজাত সন্তান ও শাশুড়িকে কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে আগ্রা শহরে। প্রসঙ্গত উত্তরপ্রদেশের আগ্রা সবচেয়ে বেশি করোনা প্রভাবিত এলাকা হিসাবে চিহ্নিত। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button