Let’s Go

নদীতে মহাবলী ছুঁড়লেন এক বিশাল পাথর, এখন দেখতে আসেন হাজারো পর্যটক

৫ ভাই নদীর জল পার করতে এসে থমকে দাঁড়ান। তারপর জলে একটি বিশাল পাথর ছোঁড়েন মহাবলী। সেই জায়গা দেখতে এখন হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমান।

কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধ শেষ। পাণ্ডবরা এরপর চললেন স্বর্গের পথে। সেই পথে এগোতে গিয়ে এক জায়গায় এসে থমকে দাঁড়ালেন তাঁরা। সামনে দিয়ে বয়ে গেছে এক নদী। নদী পার হবেন কীভাবে?

হেঁটে পার করা যেতে পারে। কিন্তু তা সম্ভব নয়। কেননা এ নদী এক নারী। তার শরীরে পা দিয়ে তো যাওয়া যাবেনা। তাহলে উপায়?

উপায় বার হল। মহাবলী ভীম এক বিশাল পাথর তুলে নিলেন। তারপর তা ছুঁড়ে দিলেন নদীর জলের ওপর। জলের ওপর সেই পাথর পড়ার পর তৈরি হয়ে গেল রাস্তা। সেই পাথরের ওপর পা দিয়ে নদী পার করলেন পাণ্ডবরা। পাথরটি একটি সেতুর কাজ করল।

এ কাহিনি মানা গ্রামের মানুষের মুখে মুখে ঘোরে। সেই পাথরটিই এখন ভীম পুল নামে খ্যাত। যা দেখতে হাজার হাজার পর্যটক প্রতিদিন ভিড় জমান এখানে। দেশের শেষ গ্রাম মানা এখন উত্তরাখণ্ডের এক অন্যতম পর্যটনক্ষেত্র। যেখানে ক্রমশ মানুষের ঢল নামা বাড়ছে।

বদ্রীনাথ মন্দির দর্শনে গিয়ে আগে মানুষ বিগ্রহ দর্শন করে সেখান থেকেই ফিরে আসতেন। এখন অনেকে না ফিরে আরও একটু উপরে উঠে যান।

৩ কিলোমিটার পথ পার করলেই এসে পড়ে মানা গ্রাম। এই গ্রামকেই ভারতের শেষ গ্রাম হিসাবে মনে করা হয়। শুধু ভারতের শেষ গ্রাম বলেই নয়, মানা গ্রামের আশপাশে রয়েছে প্রচুর দেখার জায়গা।

পুরাণ ও মহাভারতের কাহিনি এই গ্রামের সঙ্গে যেন লেপ্টে আছে। ফলে পর্যটকদের আকর্ষণ বেড়েই চলেছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button