National

ক্যানসার রোগীদের জন্য বাড়ি বানাতে মুম্বইতে জমি চাইলেন মমতা

এবার মু্ম্বই শহরে এক টুকরো জমি চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে তিনি ক্যানসার রোগীদের থাকার জন্য একটি বাড়ি বানাতে চান।

দিল্লিতে রয়েছে ভঙ্গ ভবন। এবার তেমনই একটি বঙ্গ ভবন মুম্বই শহরেও বানাতে চেয়ে জমির জন্য আবেদন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মুম্বই গিয়ে এনসিপি ও শিবসেনা নেতাদের সঙ্গে দেখা করেছেন। সেই সময় তিনি মহারাষ্ট্রের পরিবেশ মন্ত্রী আদিত্য ঠাকরে ও শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউতের সঙ্গে দেখা করেন। সেখানেই তিনি এই প্রস্তাব দেন।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সারা বছর ক্যানসারের চিকিৎসা করাতে বহু মানুষ ছুটে আসেন মুম্বইতে। তাঁরা অধিকাংশই হাজির হন টাটা মেমোরিয়াল ক্যানসার হসপিটালে চিকিৎসা করাতে।

রোগীরা এলে তাঁদের সঙ্গে তাঁদের পরিবারের লোকজনও আসেন। মুম্বই শহরে চিকিৎসা করাতে এসে তাঁদের অনেক সময় আতান্তরে পড়তে হয় থাকার জায়গার জন্য। থাকার জায়গা পাওয়া কঠিন হয় তাঁদের জন্য। পেলেও অনেক সময় অর্থের সমস্যা মাঝে এসে দাঁড়ায়।

এসব সমস্যা থেকে সাধারণ মানুষকে মুক্তি দিতে মুম্বই শহরে একটি ভবন তৈরি করতে চায় পশ্চিমবঙ্গ সরকার। তাতে সাধারণ মানুষ চিকিৎসার জন্য মুম্বই এলে উপকৃত হবেন।

বিষয়টি নিয়ে যে তাঁদের মধ্যে কথা হয়েছে তা শিবসেনার মুখপত্র সামনা-তে স্বীকার করেছেন সঞ্জয় রাউত। তিনি এও বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর দাবি অন্যায্য নয়। সেখানে ইতিমধ্যেই উত্তরপ্রদেশ ভবন ও ওড়িশা ভবন রয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের স্বাধীনতা সংগ্রামে ও সামাজিক আন্দোলনে বড় ভূমিকা রয়েছে। মহারাষ্ট্র ও পশ্চিমবঙ্গের মধ্যে একটি আবেগপূর্ণ সম্পর্কও রয়েছে। যা বজায় থাকা জরুরি বলে লেখেন সঞ্জয় রাউত।

সঞ্জয় রাউতের এই মন্তব্য থেকে অনেকেই মনে করছেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মুম্বই শহরে ভবন বানানোর জন্য জমি পাওয়া এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা।

রাজ্যসরকার এই ভবন বানাতে পারলে এ রাজ্য থেকে মুম্বই ছুটে যাওয়া ক্যানসার রোগী ও তাঁদের পরিজনদের আগামী দিনে থাকার জায়গা নিয়ে হয়তো আর ভাবতে হবেনা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.