Kolkata

রেহাই উত্তরের, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় দীর্ঘদিন পর মৃত্যু

রাজ্যে এদিন নমুনা পরীক্ষাও প্রায় একই জায়গায় রইল। সংক্রমণও গতদিনের মতই প্রায় একই জায়গায় রইল। দীর্ঘদিন পর করোনায় মৃত্যু দেখল দক্ষিণ ২৪ পরগনা।

কলকাতা : মার্চ পড়ার পর থেকে দেশের সঙ্গে সঙ্গে এ রাজ্যেও দৈনিক সংক্রমণ বেড়েছে। যা এখন প্রাত্যহিকভাবে বেড়েই চলেছে। এদিন দৈনিক সংক্রমিতের সংখ্যা গত দিনের সংখ্যার প্রায় সমান হয়েছে। গত একদিনে সংক্রমিত হয়েছেন ৬২৮ জন। নমুনা পরীক্ষাও গত দিনের তুলনায় সামান্য কমেছে। এদিন নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৭ হাজার ৮৬৯টি।

রাজ্যে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫ লক্ষ ৮৫ হাজার ৯৩৩ জন। এদিনও রাজ্যে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা বেড়েছে। দীর্ঘদিন রাজ্যে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমছিল। এখন কিন্তু টানা ঠিক উল্টো হচ্ছে। এদিনও বাড়ল অ্যাকটিভ রোগী। এদিন অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৩০৩ জনে।

মার্চের প্রথম দিনেই রাজ্যে মৃত্যু শূন্যে নেমেছিল। এদিন রাজ্যে মৃত্যু হয়েছে ২ জনের। আগের দিনের চেয়ে ১ জন বেশি মানুষের প্রাণ কেড়েছে করোনা। এদিনের মৃতের সংখ্যার হাত ধরে রাজ্যে এখন মোট মৃত্যু দাঁড়িয়েছে ১০ হাজার ৩২৭ জনে।

গত একদিনে রাজ্যে করোনায় যে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে তার মধ্যে রাজ্যের অন্যতম করোনা বিধ্বস্ত জেলা কলকাতা রয়েছে। কলকাতায় ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। দীর্ঘদিন পর দক্ষিণ ২৪ পরগনা থেকে ১ জনের করোনায় মৃত্যুর খবর মিলেছে এদিন। আর কোনও জেলায় মৃত্যু হয়নি।


ক্রমশ কমতে থাকা মৃত্যুর সংখ্যার জেরে এখন মানুষ অনেকটা স্বস্তিতে বাড়ির বাইরে কাজে বার হচ্ছেন। তবে অনেকের মুখে মাস্ক না থাকা কিছুটা হলেও চিন্তার কারণ হচ্ছে।

করোনা বিধি পালন নিয়ে সাধারণ মানুষের ঢিলেঢালা মানসিকতা দেশে অচিরেই করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ডেকে আনতে পারে বলে সতর্ক করেছে আইসিএমআর।

রাজ্যে একই সঙ্গে অনেক রোগী সুস্থ হয়ে ফিরছেন। গত একদিনে ৪৭৫ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন। যার হাত ধরে এদিন রাজ্যে করোনামুক্ত মানুষের মোট সংখ্যাটা দাঁড়িয়েছে ৫ লক্ষ ৭০ হাজার ৩০৩ জন। সুস্থতার হার কমে দাঁড়িয়েছে ৯৭.৩৩ শতাংশ। — রাজ্যসরকারের স্বাস্থ্য দফতরের দৈনিক বুলেটিন-এর সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button