Kolkata

করোনায় মৃত যাদুঘরের এক সুরক্ষা আধিকারিক

রাজ্যে করোনা সবচেয়ে বেশি থাবা বসিয়েছে কলকাতায়। এবার কলকাতার ভারতীয় যাদুঘরের সুরক্ষায় নিয়োজিত এক আধিকারিকের মৃত্যু হল করোনায়।

শহর কলকাতা এখন করোনার প্রাণকেন্দ্রে পরিণত হয়েছে। মধ্য কলকাতা জুড়ে করোনার প্রভাব সবচেয়ে বেশি। এখানে কন্টেনমেন্ট জোনও সর্বাধিক। এবার কলকাতা যাদুঘরেও থাবা বসাল করোনা। কলকাতার ভারতীয় যাদুঘরে কর্মরত এক সিআইএসএফ আধিকারিকের করোনা সংক্রমিত হয়ে মৃত্যু হয়েছে গত বৃহস্পতিবার। তিনি এএসআই পদে কর্মরত ছিলেন। কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনার বাসিন্দা ওই আধিকারিকের দেহে করোনা পজিটিভ পাওয়ার পর তাঁর মৃত্যু হয়। তারপরই তাঁর ইউনিটে থাকা ৫০ জন সিআইএসএফ কর্মীকে কোয়ারেন্টিনে পাঠায় সিআইএসএফ। এঁরা সকলেই ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছিলেন। ইতিমধ্যেই সিসিটিভি রুম, ব্যারাক এবং সব ডিউটি রুম জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে। ভারতীয় যাদুঘরও পুরো স্যানিটাইজ করা হয়েছে।

রাজ্যে সুরক্ষার সঙ্গে যুক্ত মানুষজন একের পর এক করোনা সংক্রমণের শিকার হচ্ছেন। এখনও পর্যন্ত ৩২ জন এমন পেশার সঙ্গে যুক্ত মানুষ করোনা সংক্রমিত হয়েছেন এ রাজ্যে। যারমধ্যে ১২ জন কলকাতা পুলিশের কর্মী। সেক্ষেত্রে কলকাতা পুলিশের আইসি পদাধিকারী থেকে ট্রাফিক সার্জেন্ট অনেকেই রয়েছেন। অবশ্য এ রাজ্য বলেই নয়, ভারত জুড়েই করোনার বিরুদ্ধে সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে লড়াই করা সুরক্ষা কর্মীরা নানা জায়গায় করোনা সংক্রমণের শিকার হচ্ছেন।


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button