Sports

ব্যাটিং পিচে ধোনি-যুবির মারকাটারি যুগলবন্দি, কটকেও জিতল ভারত

একদিনের ম্যাচে সাড়ে ৭০০ রান! ভাবা যায়! অথচ সেটাই হল কটকের অপেক্ষাকৃত ছোট মাঠে। ফলে দিনের শেষে রানের বন্যা দেখে মন ভরিয়ে স্টেডিয়াম ছাড়লেন দর্শকরা। ভারতের ৩৮১ রানের জবাবে কার্যত দাঁড়িয়ে হারবে ইংল্যান্ড। এমনই ভেবেছিলেন সকলে। কিন্তু এই পাহাড় প্রমাণ রান তাড়া করেও যে জেতার অবস্থা তৈরি করা যায় সেটা দেখিয়ে দিল ইংল্যান্ড। ৫০ ওভারের শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে ৩৬৬ রান পর্যন্ত পৌঁছে গিয়েছিল তারা। আর কটা ওভার বাকি থাকলে জিতটা অসম্ভব ছিলনা! এদিন টস জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠায় ব্রিটিশ বাহিনী। আর সেই ইনিংস যখন শেষ হল তখন দর্শকদের মুখে একটাই কথা, সবই হল শুধু ৪০০ রানটাই যা হল না! ৫০ ওভারের শেষে ভারতের ব্যাটিং ঝড় যখন থামল তখন বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসের মধ্যেও কোথায় যেন কটকের বারাবাটি স্টেডিয়ামে একটা চাপা আক্ষেপ দর্শকদের মুখে মুখে ঘুরছিল। খারাপ লাগাটা অন্যায়ও কিছু নয়। ৩৮১ রান করতেই শেষ ৫০ ওভার। যেরকম কিলো দরে ভারত ছক্কা আর চারের বন্যা বওয়াচ্ছিল তাতে আর ১৯ রান তুলতে একটা ওভার হাতে থাকলেও হত। প্রসঙ্গত ভারত এই ৩৮১ রানটা কিন্তু তুলেছে মাত্র ৪৬ ওভারে। কারণ ম্যাচের ৪টে ওভার মেডেন দিয়েছে তারা। ফলে সেই চারটে ওভারে যদি কিছু করেও রান আসত তাহলেও ৪০০-র গণ্ডি হাসতে হাসতে পার করে যেত কোহলির ছেলেরা। অধিনায়ক নিজে এদিন ব্যর্থ। মাত্র ৮ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরতে হয় তাঁকে। শুধু তিনি নন, ওপেনার কেএল রাহুল ও শিখর ধাওয়ান এদিনও ব্যর্থ। যার নিট ফল দাঁড়ায় স্কোর বোর্ডে মাত্র ২৫ রান করতেই ভারতের টপ অর্ডারের ৩ উইকেট চলে যায়। চাপে পড়ে যায় ভারত। এই অবস্থায় খেলতে নেমে ধোনি আর ‌যুবরাজ যে খেলাটা উপহার দিলেন তা ভারতীয় ক্রিকেটের এক স্বপ্নময় অধ্যায় হয়ে থাকবে। গোটা বারাবাটি স্টেডিয়াম যখন নিশ্চুপ তখনই ব্যাটিং ঝড় শুরু করেন ভারতের এই দুই পোড় খাওয়া ব্যাটসম্যান। তারপর মাঠে যেটা হল সেটাকে রূপকথা বললেও কম বলা হয়! চার, ছয়ের বন্যা বইতে শুরু করে ধোনি, যুবরাজের ব্যাট থেকে। ধোনি যদিওবা কিছুটা সামলে ব্যাট করছিলেন তো অন্যদিকে যুবরাজের ব্যাট তখন শুধু বাউন্ডারি লাইন দেখছে। ১২৭ বলে ১৫০ রান করে যুবরাজ ও প্রায় শেষ পর্যন্ত থেকে কব্জিতে চোট নিয়ে ১২২ বলে ১৩৪ রানের ইনিংস খেলে ধোনি যখন প্যাভিলিয়নের দিকে পা বাড়ালেন তখন ভারতের স্কোর শক্ত ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে গেছে। পরে ব্যাট করতে নেমে জাদেজা, পাণ্ডিয়া, কেদার যাদবরাও কম যাননি। যার ফলে ভারতের স্কোর দাঁড়ায় ৩৮১ রান ৬ উইকেট। টস জিতে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠানো ইংল্যান্ডের জিততে গেলে দরকার ৫০ ওভারে ৩৮২ রান। এই অবস্থায় ব্যাট করতে নেমে কিন্তু চাপমুক্ত ব্যাটিংই উপহার দিল ইংল্যান্ড। ওপেনার রয়ের ৮২ রান, রুটের ৫৪ রান, মর্গানের দুরন্ত সেঞ্চুরি, আলির ৫৫ রানের কাঁধে ভর করে ক্রমশ খেলায় জয়ের গন্ধ পাচ্ছিল ইংল্যান্ড। এত রান করেও জিত হবে না! এমন আশঙ্কা মাঝে মাঝেই পেয়ে বসেছে কটকের দর্শকদের। যদিও শেষ পর্যন্ত জয় অধরাই থেকেছে ইংল্যান্ডের। টানটান ম্যাচ জিতে ওয়ান ডে সিরিজও এখন পকেটস্থ করেছে বিরাটের ছেলেরা। নিয়মরক্ষার তৃতীয় ওয়ান ডে কলকাতায়। আগামী রবিবার, ২২ জানুয়ারি।

 


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button