Sports

ভোল্টেজ উধাও, হেলায় হারিয়ে ফের বিশ্বকাপে পাক বধ ভারতের

পাকিস্তানকে বিশ্বকাপে কখনওই বিশেষ এঁটে উঠতে দেয়না ভারত। এবারও সেই ধারাই অক্ষুণ্ণ রাখলেন বিরাট রোহিতরা। বিশ্বকাপে ফের পাক বধ পালা দেখলেন ভারতবাসী।

আমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদী স্টেডিয়ামে ভারত পাকিস্তান হাইভোল্টেজ ম্যাচে ভোল্টেজটাই খুঁজে পাওয়া গেলনা। পাকিস্তানকে পুরো ম্যাচে কোথাও কখনওই খুঁজে পাওয়া যায়নি। ভারত শুধু জিতলই না, পাকিস্তানকে দাঁড়াতেই দিল না পুরো খেলায়। টস জেতা দিয়ে শুরু করে ম্যাচ জেতা, সবই তারিয়ে উপভোগ করল একটি সিটও ফাঁকা না থাকা স্টেডিয়াম।

এদিন টস জিতে ভারত প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়। শুরুটা ভাল করে পাকিস্তান। প্রথম ২টি উইকেট হারানোর পর বাবর আজম ও রিজওয়ানের জুটি দাপুটে ব্যাটিংও করতে থাকে। পুরো ম্যাচে কেবল এই একটি সময় পাকিস্তানকে কিছুটা হলেও খুঁজে পাওয়া গিয়েছে।

এই জুটি ৮০-র ওপর রান করে। পাকিস্তান ১৫৫ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বড় রান গড়ার স্বপ্ন দেখাচ্ছিল তাদের দেশবাসীকে। কিন্তু সেখান থেকে ম্যাচের মোড় ঘোরান সিরাজ। বাবরকে বোল্ড করার সেই ক্ষণ থেকে পাকিস্তান ব্যাটিং লাইনআপ কার্যত ধসে যেতে থাকে।

কুলদীপ যাদব এক ওভারে ২ উইকেট নিয়ে আরও ভেঙে দেন পাক মনোবল। মাত্র ১৯১ রান করে পুরো দলটা প্যাভিলিয়নে ফেরে ৭ ওভার ১ বল বাকি থাকতেই।

ভারত এদিন ৫০ ওভারের ম্যাচের তুলনায় যথেষ্ট ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে মাঠে নামে। টি২০-র যুগে এই রান তাড়া করে ২০ ওভারের ম্যাচই জিতে নেয় অন্য দল। সেখানে ৫০ ওভারে ১৯২ কার্যত কোনও বড় লক্ষ্য ছিলনা।

এদিন কিন্তু তার জন্য শুরু থেকে ধরে খেলার রাস্তায় হাঁটেননি রোহিতের ছেলেরা। রোহিত ও শুভমান গিল ২ জনই শুরু থেকে মারমুখী মেজাজে ব্যাট করতে থাকেন। দারুণ কিছু শট খেলার পর শুভমান প্যাভিলিয়নে ফিরলেও রোহিত ও বিরাট খেলা টেনে নিয়ে যেতে থাকেন।

এদিন পাক বোলারদের নিয়ে মাঠে খেলা করেছে রোহিতের ব্যাট। বিরাট এদিন বরং কিছুটা কম ছন্দে নজরে পড়েছেন। বিরাট ফেরার পর শ্রেয়স আইয়ার রোহিতের সঙ্গে জুটি বাঁধেন।

রোহিত ৮৬ রান করে প্রায় একাই ভারতকে জেতার দরজায় পৌঁছে দেন। রোহিত ৮৬ রানে আউট হওয়ার পর শ্রেয়স ও কেএল রাহুল মিলেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যান ১৯ ওভার ৩ বল বাকি থাকতেই। এদিন ভারত শুধু পাকিস্তানকে হেলায় হারালই না, রান রেটেও অনেকটা এগিয়ে রইল। ভারত এখনও বিশ্বকাপে ৩টি ম্যাচ খেলে ৩টিতেই জয় পেয়েছে। এদিন ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ হন যশপ্রীত বুমরাহ।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button