Tom Latham
নিউজিল্যান্ডের জয়ের নায়ক টম ল্যাথাম, ছবি - আইএএনএস

পাহাড় প্রমাণ রান করেও নিউজিল্যান্ডের কাছে হারল ভারত

নিউজিল্যান্ডের জেতা ম্যাচ সহজে জিততে বোধহয় ভাল লাগেনা। খেলায় রোমাঞ্চ আনতে সহজে জেতা যায় এমন ম্যাচকে টানটান উত্তেজনায় নিয়ে যায় তারা। টি-২০ সিরিজে জেতা ম্যাচকে টাই করে সুপার ওভারে নিয়ে গিয়ে হেরেছিল তারা। বুধবার একদিনের সিরিজের প্রথম ম্যাচেও দুর্দান্ত ব্যাটিং করে ভারতের ৩৪৭ রানের পাহাড় তাড়া করে জয় পেল তারা। তবে খেলার শেষে এসে পরপর ২ উইকেট হারিয়ে তারা একতরফা খেলাকে টানটান উত্তেজনায় নিয়ে যায়।

পরে অবশ্য এদিনের বার্থ ডে বয় স্যান্টনারের দুর্দান্ত একটি ছক্কা ও একটি চার-এর জোরে শেষ পর্যন্ত জিতে যায় কিউয়িরা। ৩৪৮ রান করতে তারা ১১ বল এমনিতেই কম নেয়। তার ওপর বুমরাহ-র ১ ওভার মেডেন ছিল। ফলে বলা ভাল ১৭ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে নেয় নিউজিল্যান্ড। এদিন ভারতের জঘন্য বোলিং ও ফিল্ডিং কিন্তু বিরাটদের চিন্তার কারণ হল।

হ্যামিল্টনের মাঠে টস জিতে প্রথমে ভারতকে ব্যাট করতে পাঠায় নিউজিল্যান্ড। রোহিত শর্মা চোটের জন্য নিউজিল্যান্ড সফর থেকে ছিটকে গিয়েছেন। তাঁর জায়গায় এসেছেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল। একদিনের দলে জায়গা হয়েছে পৃথ্বী শ-এর। এঁরা ২ জন এদিন ওপেন করতে নামেন। পৃথ্বী ২০ রান করে ফেরার পর দ্রুত ফেরেন মায়াঙ্কও। তিনি করেন ৩২ রান। হাল ধরে বিরাট ও শ্রেয়স আইয়ার। এই ২ জনই খেলার মোড় ঘুরিয়ে দলের রান মিটারের চাকা দ্রুত ঘোরাতে শুরু করেন। ৫১ রান করে বিরাট ফেরার পর মাঠে নামেন কেএল রাহুল। জীবনের হয়তো সেরা ফর্মে রয়েছেন রাহুল। এদিনও তিনি অসাধারণ। শ্রেয়স এদিন শতরান করেন। ১০৩ রানে ফেরেন। তারপর শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে রাহুল ৮৮ রান ও কেদার যাদব ২৬ রান করেন।

৩৪৮ রানের টার্গেট একদিনের ক্রিকেটে কম নয়। সেই টার্গেট তাড়া করতে নেমে দুরন্ত শুরু করেন গাপটিল ও নিকোলস। ওপেনিং জুটি খেলার গতি তৈরি করে দেয়। গাপটিল ৩২ রানে ফেরার পর ৯ রান করে দ্রুত ফেরেন ব্লানডেল। এরপর টেলর ও নিকোলসের জুটি জমে যায়। নিকোলস ফেরেন ৭৮ রান করে। জুটি বাঁধেন টেলর ও নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক টম ল্যাথাম। ২ জনেই কার্যত খেলাটিকে জয়ের কাছে টেনে নিয়ে যান। ল্যাথাম ৬৯ রানে ফেরার পর টেলর নিশামের সঙ্গে জুটি বাঁধেন। কিন্তু ৯ রানে ফেরেন নিশাম। নামেন কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম। আর তিনি ফেরেন মাত্র ১ রান করে।

এখানেই ফের ম্যাচের মোড় ঘোরে। যেখানে বল বেশি রান কম দরকার, সেখানে হাঁকপাঁক করতে গিয়ে পরপর উইকেট হারিয়ে সহজ জয়কে টানটান ম্যাচে ঘুরিয়ে দেয় নিউজিল্যান্ড। ভারতও ডাহা হারা ম্যাচেও সামান্য আশার আলো দেখে। তবে শার্দূল ঠাকুর যে ডেথ ওভার স্পেশালিষ্ট একেবারেই নন তা এদিন প্রমাণ করে দিলেন তিনি।

তাঁর ওভারেই সেই টানটান ম্যাচ ফের কিউয়িদের দিকে পুরো ঝুঁকে যায়। হেরে যায় ভারত। টি-২০ সিরিজ ৫-০-তে জিতেছে ভারত। একদিনের সিরিজ ৩ ম্যাচের। তার প্রথম ম্যাচ জিতল নিউজিল্যান্ড। ফলে সিরিজ জিততে পরের ২টি ম্যাচই ভারতকে জিততে হবে। পরের ম্যাচ আগামী শনিবার ভারতীয় সময় সকাল ৮টা থেকে শুরু।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *