Sports

ম্যাক্সওয়েলের দানবীয় তাণ্ডব, ম্যাচ জিতে সিরিজ পকেটে অস্ট্রেলিয়ার

একজন ব্যাটসম্যান যখন ফর্মে থাকেন। আর তাঁর হাতে যদি মার থাকে। তাহলে ম্যাচের মোড়কে তিনি একা হাতে কীভাবে ঘুরিয়ে দিতে পারেন তা এদিন বেঙ্গালুরুতে দেখিয়ে দিলেন অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। তিনি একা হাতে ম্যাচই জেতালেন না, টি-২০ সিরিজও তুলে দিলেন অজিদের হাতে। নিজেদের মাঠে পরপর ২ ম্যাচ হেরে ২-০ ব্যবধানে সিরিজ হারল ভারত।

সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতেই রেখেছিল অস্ট্রেলিয়া। ফলে এদিনের ম্যাচ ভারতের জন্য মরণবাঁচন লড়াই ছিল। জিতলে সমতা। হারলে সিরিজ হাতছাড়া। এমনকি ম্যাচ টাই হলেও সিরিজ হাতছাড়া। এই অবস্থায় বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে টস জিতে ভারতকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় অস্ট্রেলিয়া। রোহিত শর্মা বদলে ভারতের ওপেনিং জুটি হিসাবে নামে কেএল রাহুল ও শিখর ধাওয়ান জুটি। নেমে সফলও হয়। ২ জনেই ভাল রান তুলতে থাকেন।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

রাহুল শুরু থেকেই বিধ্বংসী চেহারা নেন। মাত্র ২৬ বলে ৪৭ রান করে রাহুল ফেরার পর কিন্তু ভারত বেশ ভাল অবস্থায় ছিল। তবে শিখর ধাওয়ান এদিন শুরু থেকেই নড়বড় করেছেন। তাঁর ব্যাট থেকে রানই আসছিল না। ১৪ রান করে ধাওয়ান ফেরার পর বিরাট কোহলিকে সঙ্গ দিতে নামেন ঋষভ পন্থ। কিন্তু ঋষভও ১ রান করে ফেরেন। এরপর জুটি বাঁধেন বিরাট কোহলি ও ধোনি। এই জুটি এদিন অজিদের জন্য ভয়ংকর হয়ে ওঠে। বিরাট একাই ৬টি ছক্কা হাঁকান। ২টি চারও মারেন। মাত্র ৩৮ বল খেলে ৭২ রানের একটা মারকাটারি ইনিংস খেলার সঙ্গে সঙ্গে ভারতকে মজবুত ভিতের ওপর দাঁড় করিয়ে দেন তিনি। শেষ পর্যন্ত অপরাজিতও থাকেন। ধোনিও তাঁর ৪০ রানের ইনিংসে ৩টি ছক্কা ও ৩টি চার হাঁকান। ধোনি আউট হওয়ার পর কার্তিক শেষ অবস্থায় নেমে ৩ বল খেলে ৮ রান করেন। ভারত ২০ ওভারের শেষে ১৯০ রান করে।

Virat Kohli
কাজে এল না বিরাটের দুরন্ত ইনিংস, ছবি – আইএএনএস

বড় রানের স্কোরকে তাড়া করা বড় চ্যালেঞ্জ। অজিরা ব্যাট করতে নামার পর দ্রুত ফেরেন স্টোইনিজ (৭) ও অধিনায়ক ফিঞ্চ (৮)। মাত্র ২২ রানের মধ্যে অজিদের ২ উইকেট পড়ার পর হাল ধরেন শর্ট ও ম্যাক্সওয়েল। এখান থেকে অস্ট্রেলিয়াকে ঘুরে তাকাতে হয়নি। ৪০ রান করে শর্ট ফেরার পর ম্যাক্সওয়েলকে সঙ্গত দিতে নামেন হ্যান্ডসকম্ব। কিন্তু এদিন যেন ম্যাক্সওয়েল একাই ঠিক করে নিয়েছিলেন তিনি ম্যাচ জিতিয়ে ফিরবেন। অপেক্ষাকৃত সহজ পিচে এদিন নেমে থেকেই বিধ্বংসী চেহারা নেন ফর্মে থাকা ম্যাক্সওয়েল। তাঁর একার ব্যাটে ভর করেই ক্রমশ উজ্জ্বল হতে থাকে অজিদের জয়ের স্বপ্ন।

অন্যদিকে ম্যাক্সওয়েলের কাছে মার খেতে খেতে ক্রমশ ভারতীয় বোলাররা যেন সব মনোবলটুকুও হারিয়ে ফেলেন। হ্যান্ডসকম্বকে ঠেকনা হিসাবে রেখে এদিন একা ম্যাক্সওয়েলই গোটা মাঠে শাসন করতে থাকেন। তিনি ব্যাটিংয়ে মানেই চার অথবা ছয়। ৫৫ বলে এদিন ১১৩ রান করেন ম্যাক্সওয়েল। যারমধ্যে ৯টি ছক্কা ও ৭টি চার রয়েছে। থাকেন অপরাজিত। খেলার ২ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে যায় অস্ট্রেলিয়া। চার মেরে দলকে জয় এনে দেন ম্যাক্সওয়েলই। হ্যান্ডসকম্ব অন্যদিকে অপরাজিত থেকে ম্যাক্সওযেলকে বড় সাপোর্ট দেন।

Glenn Maxwell
একাই ম্যাচ ছিনিয়ে নিলেন ম্যাক্সওয়েল, ছবি – আইএএনএস

অস্ট্রেলিয়া এদিন ভারতকে ৭ উইকেটে পরাজিত করে। সিরিজের ২টি ম্যাচই জেতার সুবাদে সিরিজও জিতে নেয় তারা। এদিনের ম্যাচের সেরা হন ম্যাক্সওয়েল। ম্যান অফ দ্যা সিরিজও হন তিনিই। টি-২০ সিরিজ শেষ। ভারতের মাটিতে ভারতের বিরুদ্ধে এবার ৫ ম্যাচের ওয়ান ডে‌-তে মুখোমুখি হতে চলেছে অস্ট্রেলিয়া। যার প্রথম ম্যাচ হবে হায়দরাবাদে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *