SciTech

মাটি খুঁড়ে মিলল অভিনব চোয়ালের নতুন প্রাণির খোঁজ, একচক্ষু দানবের নামে নামকরণ

একসময় তারা দিব্যি ঘুরে বেড়াত পৃথিবীর বুকে। কিন্তু একটা সময় বিলুপ্ত হয়ে যায়। এমন প্রাণিও যে ছিল তার খোঁজ এতদিন পাননি বিজ্ঞানীরা।

পৃথিবীতে এখনও কত রহস্যই যে চাপা পড়ে আছে তা বিজ্ঞানীরাও বলতে পারবেননা। যেমন ৭৫ লক্ষ বছর আগেও এক প্রাণি এই পৃথিবীর বুকে হেঁটে চলে বেড়াত, শিকার করে খেত। কিন্তু তাদের কথা কারও জানা ছিলনা। অবশেষে মাটি খুঁড়ে মিলল তাদের জীবাশ্ম। যা থেকে তাদের অস্তিত্বের কথা জানতে পারল মানুষ।

বিজ্ঞানীরা তার খোঁজ পেলেন এই সবে। ৩৬০ লক্ষ বছর আগে পৃথিবীর বুকে ঘুরে বেড়াত বেয়ার ডগ বা ভাল্লুক কুকুর। এই প্রাণির নানা প্রজাতি ছিল। তারই এক প্রজাতি এই নয়া আবিষ্কার হওয়া প্রাণি বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা। তবে এদের চেহারা ছিল একটু আলাদা। বিশেষত এদের চোয়াল।

জীবাশ্মের চোয়াল দেখে কিছুটা বিস্মিত গবেষকেরা। চোয়ালের নিচের পাটি দাঁতে এক বিশেষ বৈশিষ্ট্য নজর কেড়েছে বিজ্ঞানীদের। এরা যে শিকারি প্রাণি ছিল তা নিয়ে সন্দেহ নেই তাঁদের। তবে আগে যে ভাল্লুক কুকুরের খোঁজ মিলেছে, এবার পাওয়া প্রাণিটি ওই গোষ্ঠীর হলেও একটু আলাদা।

ফ্রান্সের স্যালসপি নামক স্থানে খনন চালিয়ে এই নতুন প্রাণিটির খোঁজ মিলেছে। বিজ্ঞানীরা এই নতুন প্রাণিটির নাম দিয়েছেন টারটারোসায়ন কাজানাভেই। একচক্ষু দানব টারটারো-র নাম থেকেই এই প্রাণিটির নামকরণ করা হয়েছে।

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন এই বিশেষ প্রজাতিটি প্রায় ৫ লক্ষ বছর পৃথিবীর বুকে ঘুরে বেড়িয়েছে। তারপর কোনও প্রাকৃতিক কারণে বিলুপ্ত হয়ে থাকতে পারে। এদের ওজন ছিল প্রায় ২০০ কেজি।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.