National

নন্দীগ্রামে পুনর্গণনা নয়, আদালতের পথ দেখাল নির্বাচন কমিশন

নন্দীগ্রামে ভোট গণনায় কারচুপির অভিযোগ করেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পুনর্গণনার দাবি করেন। কিন্তু তা সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিল কমিশন।

নন্দীগ্রামে ভোট গণনার সময় তাঁকে প্রথমে জয়ী বলে জানানো হয়। তারপর সেই ফল বদলানো হয়। গণনার মাঝে বিদ্যুৎ বিভ্রাট হয়। তাঁর ৮ হাজার ভোট হঠাৎ শূন্য হয়ে যায় বলেও দাবি করেন মমতা। এমনও জানান, সারা রাজ্যে একরকম ফলাফল আর নন্দীগ্রামে আলাদা হয় কীভাবে?

তিনি এও জানান রিটার্নিং অফিসার যিনি ছিলেন তাঁর কাছে পুনর্গণনার দাবি করা হলে তিনি রাজি হননি। ওই রিটার্নিং অফিসারের করা একটি এসএমএস বলে তিনি একটি এসএমএস তুলে ধরেন।

যেখানে ওই রিটার্নিং অফিসার জানান পুনর্গণনার নির্দেশ দিলে তাঁর প্রাণসংশয় হতে পারে। মমতা তখনই জানিয়েছিলেন যে তিনি প্রয়োজনে আদালতে যাবেন। এদিন নির্বাচন কমিশন খোদ তাঁকে সেই রাস্তা দেখাল।

নির্বাচন কমিশনের তরফে এদিন জানানো হয়েছে, নন্দীগ্রামে ভোটের পুনর্গণনার দাবি নাকচ করেছেন রিটার্নিং অফিসার। আর রিটার্নিং অফিসার এখানে কার্যত শেষ কথা।


ফলে তিনি যখন একবার নির্দেশ দিয়েছেন তখন আর পুনর্গণনা নয়। তবে এই বিষয়টি নিয়ে হাইকোর্টে আবেদন করা যায়। সেখানে একজিকিউশন পিটিশন ফাইল করতে পারেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কমিশন সেইসঙ্গেই আরও জানিয়েছে তাদের আধিকারিকরা স্বচ্ছতার সঙ্গেই কাজ করেছেন। তাই আদালতের পথে না যাওয়াই কাম্য।

এদিন একইসঙ্গে রাজ্যসরকারকে নন্দীগ্রামের রিটার্নিং অফিসারকে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা দেওয়ার আবেদনও করা হয়েছে নির্বাচন কমিশনের তরফে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button