Thursday , October 18 2018
Asia Cup 2018
ছবি – সৌজন্যে – ট্যুইটার – @BCCI

বাংলাদেশকে হেলায় হারিয়ে সুপার ফোরে যাত্রা শুরু করল ভারত

এশিয়া কাপের সুপার ফোরে তাদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে উড়িয়ে দিয়ে একতরফা খেলে ম্যাচ জিতল ভারত। ৭ উইকেটে জয় পায় মেন ইন ব্লু। দুবাইয়ের সবুজ গালিচায় টস জেতা থেকে ম্যাচ জেতা সবটাই এসেছে ভারতের ঝুলিতে। বাংলাদেশের সেই অর্থে প্রাপ্তি শূন্য। সুপার ফোরে সব দল সকলের সঙ্গে খেলবে। অর্থাৎ ভারতের সঙ্গে এখনও খেলা বাকি পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের। তার আগে প্রথম ম্যাচ জিতে মনোবল অনেকটা বাড়িয়ে রাখল ভারত। ফাইনালে পৌঁছনোর অঙ্কেও অনেকটা এগিয়ে রইল তারা।



এদিন টস জিতে বাংলাদেশকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠান রোহিত শর্মা। ব্যাট করতে নেমে প্রথম থেকেই নড়বড় করছিল বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপ। আফগানিস্তানের কাছে হেরে এমনিতেই চাপে ছিল গোটা দলটা। তার ওপর সামনে ভারত। ফলে ফের চাপ। চাপ ছিল সুপার ফোরের প্রথম ম্যাচে ভাল ফল করার। এত চাপ বোধহয় সহ্য করতে পারেনি বাংলাদেশ। তারওপর দীর্ঘকাল বাদে ভারতীয় দলে ফেরত এসেই রবীন্দর জাদেজার বিষাক্ত বোলিং আরও কোণঠাসা করে দেয় বাংলাদেশ দলটাকে। জাদেজা একাই ৪ উইকেট তুলে নেন। এছাড়া ভুবনেশ্বর কুমার ও যশপ্রীত বুমরাহ ৩টি করে উইকেট পান। ভারতের বিধ্বংসী বোলিং আক্রমণের সামনে বাংলাদেশের খেলোয়াড়দের কার্যত অসহায় দেখিয়েছে। মেহেদি হাসান মির্জার ৪২ রান, অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা ২৬ রান, মাহমদুল্লা ২৫ ও মুশফিকুর রহিমের ২১ রানের সুবাদে বাংলাদেশ ৪৯.১ ওভার ব্যাট করে ১০ উইকেট হারিয়ে তোলে ১৭৩ রান।

১৭৪ রান করলে জিতবে এই অবস্থায় ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকে চালিয়ে খেলা শুরু করেন শিখর ধাওয়ান। অন্যদিকে অধিনায়ক রোহিত শর্মা ছিলেন অনেকটা সাবধানী। ধাওয়ান ৪০ রান করে যখন আউট হন তখন দলগত স্কোর ৬১। ভাল শুরু পায় ভারত। ব্যাট করতে নামেন আম্বাতি রাইডু। এবার চালানো শুরু করেন রোহিত শর্মা। বরং রাইডু অনেকটাই গুটিয়ে ব্যাট করছিলেন। ১৩ রান করে ক্যাচ আউট হন রাইডু। প্রথমে আম্পায়ার আউট না দিলেও রিভিউ নিলে আউট পায় বাংলাদেশ। রোহিতকে সঙ্গত দিতে নামে ধোনি। কিছুটা অনভিপ্রেত। কারণ এই জায়গাটা ‌ধোনির নয়। এখানে কার্তিক নামবেন বলেই মনে হচ্ছিল সকলের। কিন্তু এশিয়া কাপে ধোনির রানের খরা কাটাতেই হয়তো তাঁকে আগে নামানোর সিদ্ধান্ত নেয় টিম ম্যানেজমেন্ট। ধোনির সঙ্গতে রোহিত আরও হাত খুলে খেলতে থাকেন। জেতার জন্য যখন আর মাত্র ৪ রান বাকি, তখন ৩৩ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ধোনি। ব্যাট হাতে নামেন কার্তিক। এরপরই ম্যাচ জিতে যায় ভারত। রোহিত শর্মা ৮৩ রান করে অপরাজিত থাকেন। কার্তিক করেন ১ রান। ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় ভারত। ভারতের পরের ম্যাচ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে। রবিবার ফের ভারত-পাক লড়াই জমবে বলেই আশাবাদী ২ দেশের সমর্থকরা।



Advertisements

About News Desk

Check Also

Asia Cup 2018

পাকিস্তানকে হারানো ভারতের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে

পাকিস্তানকে কয়েকদিনের মধ্যে ২ বার গোহারান হারিয়ে এশিয়া কাপের ফাইনালে পৌঁছে গেল ভারত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.