Monday , March 25 2019
Hanging Knot
প্রতীকী ছবি

কন্যা সন্তান জন্মালে বিয়ের পর তালাক দেব, হবু স্বামীর হুমকিতে আত্মঘাতী তরুণী

মোহর হয়ে গেছে। ছেলের বাড়ির দাবি মেনে তাদের ৩০ হাজার টাকা পণও দেওয়া হয়েছে। ১ মাস পরেই পরিবারের পছন্দ করা ছেলের সাথে নিকাহ হওয়ার কথা। জলপাইগুড়ির মালবাজারের বাড়িতে তাই চলছিল জোরকদমে প্রস্তুতি। হবু স্বামীর সাথে সংসার পাতার স্বপ্ন দেখা শুরু করে দিয়েছিল জারিনা খাতুন। তাঁর সেই স্বপ্নের তাসের ঘর ভেঙে যায় গত সোমবার।

ওইদিন রাতে হবু স্বামী অজিত হোসেন ফোন করে তরুণীকে। অভিযোগ, ফোনে সে জারিনাকে আরও কয়েক লক্ষ টাকা পণ চেয়ে চাপ দেয়। সেই দাবির তালিকায় সংযোজন হয় পুত্রসন্তানের দাবিও। বিয়ের পর কন্যা নয়, পুত্রসন্তান চাই। না হলে জারিনাকে তালাক দেওয়ার কথা সাফ জানিয়ে দেয় তার হবু স্বামী। এভাবে বিয়ের আগেই স্বামীর ‘অত্যাচার’ সহ্য করতে পারেননি হবু স্ত্রী। রাতে নিজের ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন ওই তরুণী। পাত্র ও তার বাড়ির লোকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে মৃতার পরিবার। ঘটনার তদন্তে নেমেছে রাজগঞ্জ থানার পুলিশ। যাঁর হাতে আর কয়েকদিন পরে মেহেন্দি লাগার কথা ছিল, তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে এলাকায়।

Advertisements

Check Also

Murder

মাঠের মধ্যে সকলের সামনে মহিলাকে কুপিয়ে খুন

মাঠে ঘাস কাটতে গিয়েছিলেন বছর ৩৬-এর মহিলা সাবিত্রী হাজরা। সেখানেই হাজির হয় নিমাই হাজরা নামে এক মধ্যবয়সী ব্যক্তি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *