State

পরীক্ষায় ফেল করে স্কুলের মধ্যেই আত্মঘাতী দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী

স্কুলের মধ্যেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হল দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের ডেবরার লোয়াদা বালিকা বিদ্যালয়ে। মৃতা ছাত্রীর নাম হালিমা খাতুন।

স্কুল সূত্রের খবর, ডেবরার বাসিন্দা ১৭ বছরের হালিমা উচ্চমাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়। তাকে ফেল করা নিয়ে বকাবকি করেন স্কুলের শিক্ষিকারা। স্কুলে তলব করা হয় হালিমার অভিভাবকদেরও। তাঁদের কাছেও হালিমার ফেল করা নিয়ে অভিযোগ জানান স্কুলের শিক্ষিকারা। সেই ঘটনার পর থেকেই মনমরা হয়ে পড়ে হালিমা।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

বৃহস্পতিবার স্কুল চলাকালীন স্কুলের মধ্যেই গলায় ওড়নার ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে হালিমা খাতুন। তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে অন্যান্য ছাত্রীদের মধ্যে প্রবল চাঞ্চল্য ছড়ায়। তারা দ্রুত খবর দেয় স্কুল কর্তৃপক্ষকে। স্কুলের তরফে পুলিশে যোগাযোগ করা হলে পুলিশ এসে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। ঠিক কী কারণে হালিমা খাতুন আত্মহত্যা করল তা জানতে শুরু হয়েছে তদন্ত। স্কুলের এক ছাত্রীর এই মর্মান্তিক পদক্ষেপে বাকি ছাত্রী ও শিক্ষিকাদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *