World

নির্মীয়মাণ গুদামে আগুন কাড়ল ৩৮টি প্রাণ

চারতলা একটি গুদাম তৈরি হচ্ছিল। কাজ চলছিল পুরোদমে। সেখানেই লাগল বিধ্বংসী আগুন। আগুনে মৃত্যু হয়েছে ৩৮ জনের।

বাসস্থান নয়, তৈরি হচ্ছিল গুদাম। সেজন্য চলছিল নির্মাণ কাজ। ৪ তলা গুদাম তৈরির কাজ করছিলেন নির্মাণ শ্রমিকরা। সেই সময় আচমকাই আগুন লেগে যায়। আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে থাকে। ফলে আগুনের ঘেরাটোপে আটকে পড়েন শ্রমিকরা। অনেকেই দগ্ধ হয়ে মারা যান। আগুনের ভয়াবহতা এতটাই ছিল যে আগুন নেভাতে হিমসিম খেতে হয় দমকলকে। ৫ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ার ইচিওন শহরে। এমনিতেই দক্ষিণ কোরিয়াও করোনা বিধ্বস্ত। আস্তে আস্তে ছন্দে ফেরার লড়াই চালাচ্ছে গোটা দেশ। তারমধ্যেই ঘটে গেল এই বছরে দেশের সবচেয়ে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। ৩৮ জন শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে এই ঘটনায়। এখনও বেশ কয়েকজনের খোঁজ নেই। তাঁদের খোঁজে পোড়া ধ্বংসস্তূপের মধ্যে দেহ খোঁজার কাজ চালান দমকলকর্মীরা।

কীভাবে আগুন লাগল তার তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পর তদন্তকারীরা মনে করছেন মাটির তলায় যে তলা তৈরি হচ্ছে সেখানেই বাড়ি তৈরিতে কাজে লাগে এমন একটি রাসায়নিক ইউরিথেন মজুত ছিল। দাহ্য ওই রাসায়নিকেই প্রথমে আগুন লাগে। তারপর তা হুহু করে ছড়িয়ে পড়ে এমন বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড ঘটায়। তবে এটা এখনও নিশ্চিত নয়। ফরেনসিক বিশেষজ্ঞেরাও নমুনা সংগ্রহ শুরু করেছেন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button