National

এ ভালবাসায় কোনও খাদ হয়না, প্রমাণ করল একটি বাঁদর

ভালবাসা যে কতটা সুন্দর হতে পারে তার এক মর্মভেদী ছবি ফুটে উঠল। একটি বাঁদরের কাণ্ডে বহু মানুষের চোখে জল, মুখে তাঁদের ভালবাসার মানে শেখাল।

প্রথম দেখাটা মাস কয়েক আগে। সেদিন বাঁদরটি নিছক খাবারের খোঁজে এসে হাজির হয়েছিল একটি খামারে। খাবার সে পায়ও। তাকে দেখে খামার মালিক তাকে কিছু খাবার খেতে দেন। একদিন খাবার পাওয়ার পর ফের সে পরদিন এসে হাজির হয়। ফের খাবার পায়। এরপর এটা চলতে শুরু করে।

প্রতিদিনই বাঁদরটি হাজির হত আর প্রৌঢ় ব্যক্তি তাকে খাবার খাওয়াতেন। এমন একটা সময় এল যখন ওই প্রৌঢ় ২ জনের মতই খাবার সঙ্গে রাখতেন। আর খেতে বসে বাঁদরের সঙ্গে ভাগ করে খাবার খেতেন।

এভাবেই কাটছিল বাঁদরটির দিনগুলো। হঠাৎ একদিন ৬২ বছরের রাম কানওয়ার নামে ওই ব্যক্তি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এটা কয়েকদিন আগের কথা।

সবাই যখন শোকে আচ্ছন্ন, সবাই যখন মৃতদেহ সৎকারের বন্দোবস্ত করছেন, ঠিক তখনই সেখানে হাজির হয় সেই বাঁদরটি। এই কয়েক মাসে তার সঙ্গে যে হৃদয়ের বন্ধন ওই প্রৌঢ়ের হয়েছে তার আঘাত যে কতটা হৃদয়স্পর্শী হতে পারে তা ওই বাঁদরটির তখনকার অবস্থা না দেখলে হয়তো বোঝা যেত না।


সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলেছে। বাঁদরটি ওই মৃত ব্যক্তির দেহের পাশে ঠায় বসে থাকে। কতটা শোক যে সে পেয়েছে তা তাকে দেখে, তার অঙ্গভঙ্গি থেকেই বোঝা যাচ্ছিল।

পরে যখন শ্মশানের দিকে ওই ব্যক্তিকে নিয়ে যাওয়া হয় তখন তাঁর শরীরটা জড়িয়ে ধরে ওই বাঁদরটি পুরো পথ অতিক্রম করে। এমনকি শ্মশানেও যখন মৃত রাম কানওয়ারের দেহ দাহ করার ব্যবস্থা হচ্ছিল তখনও বাঁদরটিকে ঘুরতে দেখা যায় দেহের আশপাশে।

সৎকার পর্যন্ত সে দেহের পাশ থেকে নড়েনি। উত্তরপ্রদেশের আমরোহার এই ঘটনা এক বাঁদরের ভালবাসার এমন এক কাহিনি সামনে আনল যা দেখে অনেক মানুষের চোখ জলে ভরেছে।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button