Let’s Go

এ মন্দিরে চোখ বেঁধে পুজো করেন পুরোহিত, ভক্তের প্রবেশ নিষেধ

ভারতে এমন অনেক কিছু রয়েছে যা চমকে দেওয়ার জন্য যথেষ্ট। এ দেশেই এমন এক মন্দির রয়েছে যেখানে দেবতাকে কেউ কখনও দেখেননি।

বছরের পর বছর ধরে এ মন্দিরে পুজো হয়ে আসছে ভক্তি ভরে। তবে এখনও পর্যন্ত মন্দিরের বিগ্রহ কেউ দেখার সুযোগ পাননি।

এ মন্দিরে নিত্যপুজো হয় ঠিকই। পুরোহিত পুজো করেন। ভক্তদেরও ঢল নামে নিত্যদিন। কিন্তু অন্য মন্দিরের মত বিগ্রহকে প্রণাম করার উপায় এখানে নেই।

পুরোহিতও জানেন না তিনি যে বিগ্রহের পুজো করছেন তাঁকে চর্মচক্ষে কেমন লাগে। এখানে পুজো করতে ঢোকার আগে পুরোহিতের চোখ বেঁধে দেওয়া হয়। তাঁর মুখেও বেঁধে দেওয়া হয় কাপড়। তারপর তিনি গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে পারেন।

পুরোহিতরা পুজোর জন্য সেটুকু চোখ বেঁধে যেতে পারলেও ভক্তদের সেই পর্যন্ত পৌঁছনোর অধিকার নেই। তাঁদের মন্দির চত্বরেই প্রণাম করে বিগ্রহকে স্মরণ করতে হয়।

এ মন্দির রয়েছে উত্তরাখণ্ডের চামোলি জেলার ভান গ্রামে। লাটু দেবতা মন্দির হিসাবে পরিচিত এ মন্দিরের এমন নিয়ম কেন?

এই মন্দির নাগরাজের মন্দির। নাগরাজ ভারতীয় পুরাণে সর্প রাজ হিসাবে খ্যাত। এ মন্দিরে তিনি বিরাজ করছেন বিগ্রহ হিসাবে।

বলা হয় নাগরাজের সঙ্গে একটি মণি থাকে। সেই মণির জ্যোতি এতটাই উজ্জ্বল যে সেদিকে তাকালে চোখ যাবে ঝলসে। নষ্ট হয়ে যাবে মনুষ্য চক্ষু।

তাই সেদিকে যাতে চোখ না যায় সেজন্য পুরোহিতের চোখ বেঁধে দেওয়া হয়। ভক্তদের প্রবেশই করতে দেওয়া হয়না। এভাবেই এখানে নাগরাজ পূজিত হচ্ছেন বছরের পর বছর ধরে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.