National

এবার ১ লক্ষ, দেশে ২ মাসে সর্বনিম্ন সংক্রমণ

দেশে অনেকটা কমল দৈনিক সংক্রমণ। গত ২ মাসে সবচেয়ে কম রেকর্ড হল একদিনে সংক্রমণ। অন্যদিকে মৃত্যুও এদিন ফের অনেকটা কমেছে।

দেশে করোনা সংক্রমণের ভয়ংকর রূপ এখনও স্তিমিত হয়নি। তবে দেশে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ তার চূড়া স্পর্শ করে এখন নিম্নগামী। ধীরে হলেও নামছে সংক্রমণ।

টানা নামতে থাকা দৈনিক সংক্রমণের সেই প্রবণতা মাঝে মধ্যে ধাক্কাও খাচ্ছে বটে। সামান্য কিছুটা বেড়ে ফের কমছে সংক্রমণ। তবে এদিন অনেকটা কমেছে সংক্রমণ।

গত ২ মাসে সর্বনিম্ন এদিনের সংক্রমণ সংখ্যা। এদিন দেশে করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা হয়েছে ১ লক্ষ ৬৩৬ জন। গত ৫ এপ্রিল ১ লক্ষ পার করেছিল দেশে একদিনে সংক্রমণ। এদিন ফের সেই ১ লক্ষে নেমে এল সংক্রমণ। দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৮৯ লক্ষ ৯ হাজার ৯৭৫ জন।

এদিন ১৫ লক্ষ ৮৭ হাজার ৫৮৯টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে দেশে। দেশে এদিন নমুনা পরীক্ষা গত দিনের তুলনায় প্রায় ৫ লক্ষ কমেছে।

এদিকে দেশে গত একদিনে মৃত্যু ফের নেমেছে। মহারাষ্ট্রে মৃত্যু বাড়লেই দেশের দৈনিক মৃতের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে। আবার মহারাষ্ট্রে কোনওদিন কম মৃত্যু হলে ভারতের মোট সংখ্যাও কমছে।

দেশে এদিন মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪২৭ জনের। দেশে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ লক্ষ ৪৯ হাজার ১৮৯ জন। দেশে মৃত্যুর হার ১.২০ শতাংশ থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১.২১ শতাংশ।

এদিন মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৬১৮ জনের। এছাড়া কর্ণাটকে ৩২০ জনের, কেরালায় ২২৭ জনের, তামিলনাড়ুতে ৪৩৪ জনের ও পশ্চিমবঙ্গে ১০৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। দেশের এই ৫টি রাজ্য ছাড়া বাকি রাজ্যর দৈনিক মৃত্যু ২ বা ১ অঙ্কে দাঁড়িয়ে আছে।

দেশে এদিনও অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমেছে। দেশে অ্যাকটিভ রোগী এদিন কমেছে ৭৬ হাজার ১৯০ জন। দেশে এখন অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ লক্ষ ১ হাজার ৬০৯ জন। দেশে এখন কমে ৪.৮৫ শতাংশ হয়েছে অ্যাকটিভ রোগীর হার।

এদিকে দেশে সংক্রমিতের চেয়ে এদিন সুস্থ হয়ে হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। গত একদিনে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ লক্ষ ৭৪ হাজার ৩৯৯ জন।

দেশে মোট সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ৭১ লক্ষ ৫৯ হাজার ১৮০ জন। সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৩.৯৪ শতাংশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button