National

দেশে ২ লক্ষের নিচে নামল অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা

দেশে একদিনে করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণ গত ৮ মাসের মধ্যে সবচেয়ে নিচে নামে আগের ২ দিনে। এদিন কিন্তু সংক্রমণ ফের কিছুটা বাড়ল।

নয়াদিল্লি : নতুন বছরের শুরু থেকে প্রধানত ২০ হাজারের নিচেই রয়েছে দেশে দৈনিক সংক্রমণ। গত ৮ মাসে দৈনিক সংক্রমণ ও মৃত্যু এতটা নিচে নামেনি যতটা আগের ২ দিনে দেশে নেমেছে।

তবে গত একদিনে সংক্রমণ ফের কিছুটা বেড়েছে। একদিনে সংক্রমিত হয়েছেন ১৩ হাজার ৮২৩ জন। দেশে ৭ লক্ষ ৬৪ হাজার ১২০টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। আগের দিনের চেয়ে কিছুটা বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধির হাত ধরে এদিন ১ কোটি ৫ লক্ষ ৯৫ হাজার ৬৬০ জনে দাঁড়িয়েছে দেশে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা। এদিন সুস্থ হয়ে ওঠা মানুষের সংখ্যা সংক্রমিতের চেয়ে বেশি হয়েছে।‌ যারফলে দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা এদিন নেমে গেছে ২ লক্ষেরও নিচে।

এদিন দেশে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৯৭ হাজার ২০১ জনে। একদিনে কমেছে ৩ হাজার ৩২৭ জন। যার হাত ধরে দেশে এখন করোনা অ্যাকটিভ রোগীর হার ১.৮৬ শতাংশ।


নতুন বছরে ২০০-র ঘরেই ছিল দেশে দৈনিক করোনায় মৃত্যু। মাঝে ৩ দিনে ২০০-র নিচে নেমেছিল মৃত্যু। তারপর ২০০-র ঘরে ফিরলেও ফের তা ফের এখন নিচে নেমেছে।

গত একদিনে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১৬২ জনের। এদিনের মৃতের সংখ্যার হাত ধরে দেশে মোট করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ লক্ষ ৫২ হাজার ৭১৮ জন। ১.৪৪ শতাংশ মৃত্যুর হার রয়েছে দেশে।

এদিকে গত একদিনে দেশে রাজ্য ভিত্তিক যে মৃতের সংখ্যার খতিয়ান সামনে এসেছে তাতে করোনায় মৃত্যুর নিরিখে পশ্চিমবঙ্গ দেশে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। গত একদিনে মহারাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ৫০ জনের। কেরালায় মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের। পশ্চিমবঙ্গে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের।

করোনা রোগী ও মৃত্যু যেমন বেড়ে চলেছে তেমনই অন্যদিকে তাল মিলিয়ে বাড়ছে সুস্থ হয়ে ওঠার হার। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে হারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৬ হাজার ৯৮৮ জন।

দেশে এখন মোট করোনামুক্ত মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ২ লক্ষ ৪৫ হাজার ৭৪১ জন। দেশে সুস্থতার হার বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯৬.৭০ শতাংশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button