National

লোক ভর্তি গাড়ি দাঁতে টেনে পিছিয়ে দিল বাঘ

গাড়িতে ভর্তি লোকজন। বড় গাড়ি। সেই গাড়িই দাঁতে টেনে কিছুটা পিছিয়ে দিল একটি বাঘ। রয়্যাল বেঙ্গলের এই শক্তি প্রদর্শনের ভিডিও এখন ভাইরাল।

বেঙ্গালুরু : একটা রয়্যাল বেঙ্গল টাইগার প্রাণপণে দাঁত দিয়ে কামড়ে টানছে একটি সাফারি গাড়ির পিছনের রিয়ার বাম্পার। চোয়ালের জোড়ে একটা দিক খুলে দেয় সে। তারপর সেটিকে গাড়ি থেকে একদম আলাদা করে দেওয়ার চেষ্টায় ত্রুটি রাখেনি।

নানাভাবে চেষ্টা চালিয়ে গেছে। এটা অবশ্য পরিস্কার নয় যে কেন তার ওই বাম্পারটার ওপর রাগ গিয়ে পড়ল। যদিও এখানেই ক্ষান্ত হয়নি সে। অনেক চেষ্টার পরও রিয়ার বাম্পারটিকে গাড়ি থেকে খুলে নিতে না পেরে সে এবার গাড়িটির পিছনের অংশ দাঁতে কামড়ে টানতে শুরু করে।

বাঘের দাঁতের টানে গাড়ি পিছন দিকে যেতে থাকে। যদিও কয়েকজনের দাবি গাড়ি বাঘের চোয়ালের জোরে পিছনে যায়নি। বরং গড়ির চালকই গাড়িটিকে পিছোচ্ছিলেন। যদিও তা পরিস্কার করে জানা যায়নি।

এদিকে বাঘের দাঁত দিয়ে টানার সময়ই গাড়ি পিছোতে থাকায় সিংহভাগ মানুষ মনে করছেন বাঘের টানেই গাড়ি পিছনের দিকে গেছে।


গাড়িতে তখন অনেক মানুষ। গাড়ির জানালা জাল দিয়ে ঘেরা। জঙ্গল সাফারিতে এমনটাই হয়। যাতে বন্য জীবজন্তু গাড়ির আরোহীদের ওপর হামলা না করতে পারে। কিন্তু বাঘের এই কাণ্ডে কিছুটা হলেও ভয় পেয়ে যান আরোহীরা।

পুরো ঘটনা পাসের একটি গাড়ি থেকে ক্যামেরাবন্দি করেন কেউ। পরে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়।

বাঘটি যখন গাড়ির পিছন দিক ধরে টানছে তখন দেখা যায় জঙ্গলের মধ্যে থেকে আরও একটি বাঘ গুটিগুটি পায়ে তার কাছে চলে আসে। পর্যবেক্ষণ করতে থাকে অন্য বাঘটি কী করছে।

দেড় মিনিটের ভিডিওটি এখানেই শেষ হয়। ফলে দ্বিতীয় বাঘটি আবার এই কাজে তার দাঁত ব্যবহার করেছিল কিনা তা জানা যায়নি। ঘটনাটি ঘটেছে বেঙ্গালুরুর বানারঘাটা পার্কে।

এই ঘটনা নিয়ে পর্যটকদের মধ্যে বেশ একটা চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। অনেকে মজা করে বলছেন বাঘটি রোগা। তার বোধহয় খুব খিদে পেয়েছিল। তাই খাবার ভেবে অমন কাণ্ড করেছে সে।

Show Full Article
Back to top button